ঢাকা     শুক্রবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১০ ১৪২৭ ||  ০৭ সফর ১৪৪২

তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, আসামির আত্মহত্যা 

নজরুল মৃধা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৫১, ২২ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, আসামির আত্মহত্যা 

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর : নগরীতে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ২৫ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার জেরে অভিযুক্ত আসামি বিষপানে আত্মহত্যার ঘটনায় ওই ছাত্রীর আদালতে জবানবন্দী শেষে মায়ের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় বিচারক স্নিগ্ধা রাণী চক্রবর্তী রংপুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে জবানবন্দী গ্রহণ করেন। ঘটনার সাথে অভিযুক্ত আসামি বিষপানে আত্মহত্যা করায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে উত্তোলনের জন্য আদালতে আবেদন করেছেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও জজ আদালতের পিপি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হাজিরহাট থানার এসআই ফেরদৌস জানান, রংপুর মহানগরীর নজিরের হাটের রাধাকৃষ্ণপুর রহমতপাড়ার মেয়েটির মা পাশ্ববর্তী জুয়েলের মালিকানাধীন সোনার বাংলা নার্সারি ও এগ্রো বাংলা লিমিটেডের কেয়ারটেকার তোফাজ্জল হোসেনের রান্নার কাজ করতো। মায়ের কাজ করার সুবাদে কন্যা একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী (১১) সেখানে যাতায়াত করতো। মায়ের সাথে মেয়েটি ওই নার্সারিতে বিভিন্ন কাজকর্ম করতো। এরই মধ্যে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর দেখা যায় মেয়েটি ২৫ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। এরপর মেয়েটিকে নজিরের হাটে ল্যাপরোসি মিশনে ভর্তি করা হয়। মেয়ের মা ১৮ আগস্ট হাজিরহাট থানায় অজ্ঞাতনামাদের অভিযুক্ত করে একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

তদন্ত কর্মকর্তা আরো জানান, ধর্ষণের ঘটনায় প্রাথমিকভাবে অভিযুক্ত তোফাজ্জল হোসেন বিষক্রিয়ায় মারা গেছে। তার মৃত্যু কিভাবে হল তা জানার জন্য লাশের ময়নাতদন্ত প্রয়োজন। এ জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

সোনার বাংলা নার্সারি এন্ড এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের মালিক জুয়েল রাইজিংবিডিকে জানান, তিন বছর থেকে তোফাজ্জল নার্সারির সব বিষয় দেখাশুনা করে আসছে। ১৬ জুলাই শুক্রবার খবর পাই তোফাজ্জল বিষ খেয়েছে। সাথে সাথে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনি মারা যান। এরপর ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাকে তার গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়।

রংপুর জজ আদালতের পিপি আব্দুল মালেক জানান, এ ঘটনার মামলার বাদী মেয়েটির মা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-১ শিশুটিকে আনেন। আদালতের বিচারক স্নিগ্ধা রানী চক্রবর্তী জবানবন্দী গ্রহণ করেন।

 

রাইজিংবিডি/রংপুর/২২ আগস্ট/২০১৯ইং/নজরুল মৃধা/বুলাকী

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়