ঢাকা, রবিবার, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

জাফলংয়ে অর্ধশত স্থাপনা উচ্ছেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-১২ ১০:১২:৪৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-১২ ১০:১২:৪৬ পিএম

বাংলাদেশের অন্যতম পর্যটন এলাকা প্রকৃতিকন্যা জাফলংয়ে বনবিভাগের বেশ কয়েক একর জমি দখল করে গড়ে তোলা হয় একাধিক স্টোন ক্রাশার মিল। এ সব ক্রাশার মিলে চলত পাথর ভাঙার কাজ। বেশ কয়েক বার জমি ছাড়তে তাদের নোটিশ করে বনবিভাগ। এ ছাড়া অভিযানও পরিচালনা করা হয়। তারপরও দখলদারদের কবল থেকে মুক্ত হয়নি এ সব ভূমি। ফলে জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন জানায় বনবিভাগ।

তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে জমি দখলমুক্ত করতে শনিবার দিনভর অভিযান চালিয়েছে সিলেট জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে জাফলং গ্রীণপার্ক, কানাইজুড়ি ও রহমতপুর এলাকায় অভিযান চলে।

অভিযানে ভূমি দখল করে গড়ে তোলা ২৪টি টিনের তৈরি অবৈধ স্থাপনা ধ্বংস করা হয়। একই সঙ্গে ওই এলাকায় বসানো ছোট-বড় ৩৩টি অবৈধ ক্রাশার মেশিন উচ্ছেদ করা হয়। বনাঞ্চলের অভ্যন্তরে ডাম্পিং করে রাখা প্রায় ১ হাজার ৮০০ ঘনফুট পাথরও জব্দ করা হয়েছে।

অভিযান পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, বন বিভাগের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের জায়গা থেকে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের সময় বন ও পরিবেশ বিনষ্ট করে ব্যবসা পরিচালনাকারী পাথর ব্যবসায়ীদের কঠোরভাবে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। বন ও পরিবেশ রক্ষায় জনস্বার্থে জেলা প্রশাসনের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

অভিযানকালে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বিশ্বজিত কুমার পাল, গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) হিল্লোল রায়, বিজিবির তামাবিল কোম্পানী কমান্ডার হুমায়ুন আহমেদ, বনবিভাগের সারী রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. সাদ উদ্দিন, জাফলং বন বিট কর্মকর্তা জহিরুল ইসলামসহ পুলিশ, বিজিবি ও বন বিভাগের শতাধিক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।


সিলেট/আব্দুল্লাহ আল নোমান/বকুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন