ঢাকা, শুক্রবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘তুমি রবে নীরবে হৃদয়ে মম…’

আব্দুল্লাহ আল নোমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৪ ১০:২১:৩৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৫ ৮:১৯:১৯ এএম

সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে ‘আত্মপ্রচারে’ ব্যস্ত নেতা-কর্মীরা। বড় বড় ছবি দিয়ে টানিয়েছেন ব্যানার-ফেস্টুন আর বিলবোর্ড। তবে এর মাঝে ব্যতিক্রম কেবল তিনজন; তারা দলের প্রয়াত নেতাদের স্মরণ করে সাঁটিয়েছেন ফেস্টুন। তাদের এমন উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

তাদের একজন জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী। সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গনের পরিচ্ছন্ন একজন নেতা হিসেবে খ্যাতি রয়েছে তার। ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উঠে আসা জগলু চৌধুরী এবারের জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন। তবে এ নিয়ে তার কোনো মাথা ব্যথা নেই। নিজের ‘আত্মপ্রচার’ না করে তিনি স্মরণ করেছেন দলের প্রয়াত নেতাদের।

বুধবার নগরের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠের পাশে বড় বড় ব্যানার-ফেস্টুনের ভিড়ে সাদাকালো ছোট আকারের কয়েকটি ফেস্টুনের দেখা মেলে। ‘তুমি রবে নীরবে হৃদয়ে মম’- শিরোনামে এসব ফেস্টুনে ছবি রয়েছে প্রয়াত সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ, প্রয়াত আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য দেওয়ান ফরিদ গাজী, প্রয়াত জাতীয় সংসদের স্পিকার হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী, প্রয়াত আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, প্রয়াত সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এম এস কিবরিয়ার।

ছবির নিচে ‘শ্রদ্ধা অনিঃশেষ’ কথাটিও লেখা রয়েছে। এর নিচে আওয়ামী লীগের দলীয় লোগোর পাশে ছোট করে জগলু চৌধুরীর নাম লেখা। এর পাশে একটি ফেস্টুনে লেখা আছে ডা. নাজরা চৌধুরীর নাম, যিনি হবিগঞ্জের সাবেক সংসদ সদস্য ইসমত আহমদ চৌধুরীর মেয়ে। 

এছাড়া চৌহাট্টা পয়েন্টে একটি বিলবোর্ড টানিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্ত; যদিও সেই বিলবোর্ডে প্রয়াত নেতাদের সঙ্গে নিজের এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আফসর উদ্দিনের ছবিও ছাপিয়েছেন।

আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আসা সিলেটের কানাইঘাট আওয়ামী লীগের এক নেতা বলছিলেন, ‘‘সব নেতারা নিজেদের আত্মপ্রচারে ব্যস্ত। কিন্তু যারা দলের জন্য ত্যাগ করে আর বেঁচে নেই, তাদের কেউ স্মরণ করছেন না। এক্ষেত্রে এই তিন বিলবোর্ড অনুকরণীয় হতে পারে। এজন্য তিনি জগলু চৌধুরীসহ অন্য দুই জনের প্রশংসা করেন।’’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, ‘‘এখন দলে হাইব্রিড নেতাদের আধিপত্য। যে কারণে প্রয়াত জাতীয় নেতাদের ভুলে গেছেন তারা। বড় সম্মেলনে নিজেদের আত্মপ্রচারে ব্যস্ত রয়েছে; যা কাম্য নয়।’’

এ বিষয়ে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী বলেন,  আওয়ামী লীগের অর্জনের বিশাল ইতিহাস রয়েছে। এটি গণমানুষের সংগঠন, এখানে আত্মপ্রচারের সুযোগ নেই। এখানে গণমানুষের ইচ্ছা আকাঙক্ষার প্রতিফলন ঘটবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ অনেক এগিয়ে যাচ্ছে, নিজের দেশের টাকায় পদ্মাসেতুসহ বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। এ সব অর্জন মানুষের সামনে তুলে ধরাই রাজনীতির প্রচারণার অংশ হওয়া উচিত।

তিনি বলেন, আত্মপ্রচার নয় বরং যাদের জন্য আজকের আওয়ামী লীগ, তাদের স্মরণ করতে হবে। অতীত ভুলে গেলে চলবে না। মূলত রাজনীতিতে পচনশীল নেতৃত্বের কারণে এখন সবাই আত্মপ্রচারে ব্যস্ত। এ অবস্থা বিরাজমান থাকলে রাজনীতিতে ভালো মানের নেতৃত্ব বেরিয়ে আসবে না, নেতৃত্ব আরো পচনশীল হবে, যা কাম্য নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি। সভাপতিত্ব করবেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান। এতে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।


সিলেট/বকুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন