ঢাকা, শুক্রবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে যাবে ধান কেনার টাকা

ফরাজী ইমরান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৫ ৮:১৮:৩৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৫ ১:১৫:০১ পিএম

চলতি আমন মৌসুমে পটুয়াখালী জেলার কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কিনছে সরকার। ধান ক্রয়ের টাকা পরিশোধ করা হবে সংশ্লিষ্ট কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে। ধানের ন্যায্যমূল্যসহ মধ্যস্বত্বভোগী, ফড়িয়া বা দালালদের হাত থেকে ধানের বাজার রক্ষায় নেয়া হয়েছে এমন উদ্যোগ।

প্রতি বছর কৃষকের গোলায় ধান উঠতে না উঠতেই মধ্যস্বত্তভোগীদের তৎপরতায় ধানের বাজার দর থাকে নিম্নমুখী। মিটার পদ্বতির ব্যবহার না থাকায় ফড়িয়া-দালালরা কৃষককে জিম্মি করে প্রতি মনে ৪০ কেজির পরিবর্তে ৪৭ কেজি হিসাবে ৭ কেজি ধান বেশি হাতিয়ে নিচ্ছে। প্রত্যেকটি হাট-বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে এসব ফড়িয়া-দালালরা। এ কারণে বাইরের কোন ক্রেতা আসতে পারছে না ধানের বাজারে। বাধ্য করা হত তাদের কাছেই ধান বিক্রি করতে। ফলে দালালরা মাঝখান থেকে বিনা পুজিঁতেই হাতিয়ে নিত কোটি কোটি টাকার মুনাফা।

কলাপাড়া উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে উপজেলায় ৩৪ হাজার চারশ হেক্টর জমিতে জমিতে আমন ধান চাষ হয়েছে। ফলনের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ১ লাখ ৮ হাজার মেট্রিক টন। চলতি আমন মৌসুমে উপজেলায় নিবন্ধিত ৩৫ হাজার কৃষকের মধ্যে প্রায় ৩ হাজার কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ২৮৪৫ মেট্রিক টন ধান ক্রয়ের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ২৬ টাকা কেজি দরে এসব ধান ক্রয় করা হচ্ছে।

কৃষক মৈত্রীর সভাপতি কৃষক আলাউদ্দিন বলেন, সরকারিভাবে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছিল কৃষকরা। মধ্যস্বত্ত্বভোগী ফড়িয়া বা দালালের চাপে পড়ে দিনদিন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলেন কৃষক। অনেকেই অনাগ্রহী হারিয়ে ফেলেছিল আমন চাষের ওপর। কিন্তু প্রক্রিয়াটি চালু হওয়ায় উপকৃত হবে কৃষক। সরকারিভাবে কৃষকদের স্বার্থ রক্ষার এমন উদ্যোগে তারা আরো বেশি আগ্রহী হবে কৃষি কাজে।

কলাপাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবদুল মান্নান রাইজিংবিডিকে জানান, যাছাই-বাছাই শেষে প্রকৃত কৃষকদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে তালিকা পটুয়াখালী পাঠানো হয়েছে। ধান বিক্রির টাকা কৃষকদের ব্যাংক অ‌্যাকাউন্টে পরিশোধ করা হবে।

পটুয়াখালী জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, এবারই প্রথম জেলার কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করছে সরকার। এতে ধানের প্রকৃত মূল্য পাচ্ছে কৃষক। জেলার সব কৃষকদের জানাতে হবে যে, খাদ্য গুদামের মাধ্যমে ন্যায্যমূল্যে সরকার ধান ক্রয় করছে। কৃষকরা যেন সরকারি এ সুবিধা গ্রহণ করেন।

 

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)/ইমরান/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন