ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আলু রোপনের মহোৎসব

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-১১ ২:৩২:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-১১ ২:৩২:২৬ পিএম

মুন্সীগঞ্জ জেলার বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে আলু রোপনের মহোৎসব শুরু হয়েছে। নভেম্বর মাস থেকেই জমি পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ শেষে কৃষককূল চলতি মৌসুমে আলু আবাদে নেমে পড়েছে।

অন্যদিকে এখানে কৃষকের সাথে আবাদে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত প্রায় লক্ষাধিক পুরুষ ও নারী শ্রমিক। তারা রোজ হিসেবে আবার চুক্তি হিসেবে কৃষকের জমিতে আলু রোপন করছেন। একই সঙ্গে বাড়ির আঙিনায় কৃষকদের সহযোগিতায় সার্বক্ষনিক কাজ করে যাচ্ছেন বাড়ির গৃহিনীরাও।

সদর উপজেলার সাতানিখিল গ্রামের আইয়ুব মিয়ার স্ত্রী গৃহবধূ সাজেদা আক্তার জানান, এবারও তারা জমিতে আলু রোপন করছেন। এ জন্য কৃষক স্বামী আইয়ুব মিয়াকে সাহায্য করতে নিজ বাড়ির উঠানে বসেই আলু বীজ কেটে দিচ্ছেন। প্রতিবেশী গৃহবধূরাও মজুরী পাওয়ায় আশায় এ কাজে যুক্ত হয়েছেন।

জানা গেছে, জেলার ৭৫ থেকে ৮০ হাজার কৃষক পরিবার আলু আবাদের সঙ্গে জড়িত। তাই পরিবারগুলো এখন আলু রোপন করে লাভের আশায় নতুন স্বপ্ন বুনছে। আলুর বাম্পার ফলনে আগামীর অর্থনৈতিক ভীত তৈরির স্বপ্ন দেখছেন তারা।

বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, সদর উপজেলার চরাঞ্চলের চরকেওয়ার, বাংলাবাজার, মোল্লাকান্দি, শিলই ও আধারা, মহাকালী, বজ্রযোগিনী, রামপাল ইউনিয়নে এবং টঙ্গিবাড়ী উপজেলার আলদী, ধামারণ, কাঠাদিয়া, শিমুলিয়া, যশলং, ধীপুরসহ বিভিন্ন গ্রামে এবং সিরাজদিখান, লৌহজং, গজারিয়া ও শ্রীনগর উপজেলা জুড়ে আলু রোপন কাজে ব্যস্ত সময় কাটছে কৃষকের।

কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আলু আবাদের মৌসুম এলে রংপুর, দিনাজপুর, গাইবান্ধা, নিলফামারী, ময়মনসিংহ, কুড়িগ্রামসহ উত্তরবঙ্গের প্রায় এক লাখ শ্রমিক বর্তমানে কৃষকের সঙ্গে আলু রোপন কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

রংপুর জেলা থেকে আগত শ্রমিক আব্বাস মিয়া জানান, কোথাও চুক্তি অনুযায়ী আবার কোথাও দিনব্যাপী মজুরি নিয়ে তারা কৃষকের জমিতে আলু রোপন কাজ করছেন। রোপন কাজ শেষে ফিরে যাওয়ার পর আবার আলু উত্তোলনের সময় তারা আবারও আসবেন মুন্সীগঞ্জ জেলায়। কৃষকরা শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরী দেওয়ায় তারাও খুশী জোয়ার নিয়ে প্রখর রোদের তাপে আলু রোপন কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

মুন্সীগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা আল মামুন জানান, চলতি মৌসুমে জেলায় ৩৯ হাজার ৪শ হেক্টর জমিতে আলু আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। শীতের শুরুতেই মুন্সীগঞ্জ সদর, সিরাজদীখান, লৌহজং, টঙ্গিবাড়ী, গজারিয়া ও শ্রীনগর উপজেলা বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে আলু আবাদের উৎসব শুরু হয়েছে। সবচেয়ে বেশি আলু আবাদ হচ্ছে জেলা সদরেই। গত মৌসুমে জেলায় ৩৯ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে আলু আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হলেও ৩৮ হাজার ৫৫০ হেক্টর জমিতে আলু আবাদ হয়েছিল।


মুন্সীগঞ্জ/ শেখ মোহাম্মদ রতন/টিপু

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : মুন্সিগঞ্জ, ঢাকা বিভাগ