ঢাকা, রবিবার, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

বাড়ি পৌঁছে গেল টাকা!

বাগেরহাট সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-১৬ ৩:০৪:৫৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-১৬ ৫:০১:০৯ পিএম

রোববার বিকেল সাড়ে চারটা। হঠাৎ বাড়ির সামনে জেলা প্রশাসনের গাড়ি। গ্রামের লোকজন হতবাক! গাড়ি দেখে আশপাশের অনেকেই ছুটে এলেন। কিন্তু যাদের খোঁজে আসা, তাদের কেউ বাড়িতে ছিলেন না।

খোজঁখবর নিয়ে বাড়ির অদূরে চুলকাঠি বাজারের একটি চায়ের দোকানে পাওয়া গেল তাদের। কিসমতভট্ট গ্রামের বিজন ও পঙ্কজ দেবনাথ দুই ভাইয়ের সাথে এই বাজারেই সাক্ষাৎ হলো বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. কামরুল ইসলামের। সেখানেই তাদের হাতে তুলে দেয়া হলো জমি অধিগ্রহণের প্রায় ১০ লাখ টাকার দুটি চেক।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের আকষ্মিক আগমনে হতবাক তারা। সেই সাথে খুশিও হয়েছেন।

তারা বলেন, ‘জেলা প্রশাসক মহোদয় এখানে আসবেন কখনো ভাবতেও পারিনি। আমরা অনেকবার জমি অধিগ্রহণ শাখায় গিয়েছি। কিন্তু চেক পাইনি। আজ আমাদের বাড়িতে এসেছেন। বাড়িতে না পেয়ে খুঁজে বের করে চেক দিয়েছেন। বিশ্বাসই হচ্ছে না! আরো যারা চেক (জমির অধিগ্রহণ টাকা) পাবেন তারা যেন আমাদের মতই পান। আমরা দালাল ও দুর্নীতিমুক্ত জেলা প্রশাসন চাই।’

এদিকে রামপাল উপজেলার উজলকুড় গ্রামের মমতাজ বেগম খানজাহান আলী বিমান বন্দরের অধিগ্রহণকৃত জমির টাকা পেয়ে খুশি।

তিনি বলেন, ‘ভ্যানে করে বাড়ি ফিরছিলাম। পথে জেলা প্রশাসনের গাড়ি দেখে এগিয়ে গেলাম। জানতে পারলাম জমির টাকার চেক দেয়া হচ্ছে। পরে তাদের কাছ থেকে দুটি চেক পেলাম। এভাবে জমির টাকার চেক পাব কোনদিন ভাবতে পারিনি। এলাকাবাসী বর্তমান জেলা প্রশাসনের এই ব্যতিক্রম উদ্যোগে খুশি। এ ধরনের উদ্যোগ অব্যাহত রাখার দাবি করছি। এতে মানুষের খুবই উপকার হবে।’

এ বিষয়ে বাগেরহাট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. কামরুল ইসলাম বলেন, “জেলা প্রশাসনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার লক্ষ্যে ঘরে ঘরে সেবা পৌঁছে দিতে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ স্যারের এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। আমরা এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে কাজ করছি।

‘প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্প খুলনা ও মোংলা রেললাইন এবং খানজাহান আলী বিমান বন্দরের জমি অধিগ্রহণের টাকার চেক জমির মালিকদের খুঁজে বের করে দেয়া হচ্ছে। তাদেরকে যেখানে পাব, সেখানেই প্রাপ্য বুঝিয়ে দেয়া হবে। দালাল ও দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করছে বাগেরহাট জেলা প্রশাসন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা রোববার খুলনা ও মোংলা রেললাইন এবং খানজাহান আলী বিমান বন্দরের ৩৪ জন জমির মালিককে খুঁজে বের করে ৮৫ লাখ টাকার চেক বিতরণ করেছি।’

 

বাগেরহাট/টুটুল/সনি

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : বাগেরহাট, খুলনা বিভাগ