ঢাকা, সোমবার, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কৃষকের লাশ ফেরত দিলো বিএসএফ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১০ ৯:৪২:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১০ ৯:৪২:৫৮ পিএম

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বাংলাদেশি কৃষক ছলেমানকে (৪৭) গুলি করে হত‌্যার কয়েক দিন পর তার লাশ ফেরত দিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ছলেমানের লাশ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মাধ্যমে দৌলতপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে বিএসএফ।

নিহত ছলেমান দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ছলিমেরচর এলাকার শাহাদতের ছেলে।

কুষ্টিয়া ৪৭ বিজিবির সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান জানান, দৌলতপুর উপজেলার চিলমারী ইউনিয়নের ডিগ্রিরচর সীমান্ত এলাকার ৮৪/২-এস সীমান্ত পিলার সংলগ্ন নোম্যান্স ল্যান্ডে বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে বাংলাদেশি কৃষক ছলেমানের মরদেহ গ্রহণের জন্য পতাকা বৈঠক হয়।

পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধীন চিলমারী বিজিবি কোম্পানির অধিনায়ক সুবেদার কাছার আলী এবং ভারতের পক্ষে ১৪১ বিএসএফের চরভদ্রা ক্যাম্পের অধিনায়ক এসি বলরাম সিং নেতৃত্ব দেন।

আনুষ্ঠানিকতা শেষে কৃষক ছলেমানের মরদেহ দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আরিফুর রহমানের কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

গত ৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টার দিকে দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ছলিমেরচর সীমান্তের ১৫৭/২-এস সীমান্ত পিলার সংলগ্ন বাংলাদেশি ভূখণ্ডে নিজ জমিতে কাজ করছিলেন ছলেমান। এ সময় ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার জলঙ্গী থানার ১৪১ বিএসএফের মুরাদপুর ক্যাম্পের টহল দল বিনা উসকানিতে তাকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে কৃষক ছলেমান গুলিবিদ্ধ হলে বিএসএফ তাকে ধরে যায়। তাকে ভারতের মুর্শিদাবাদের বহরমপুর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকেলে ছলেমান মারা যান।


কুষ্টিয়া/কাঞ্চন কুমার/রফিক

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : কুষ্টিয়া, খুলনা বিভাগ