ঢাকা, সোমবার, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কন্যাশিশু হওয়ায় গর্ভধারিণীর হাতেই গেল প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৫ ১০:০৫:০৬ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৫ ১:৪০:৫১ পিএম

গর্ভধারিণী মায়ের হাতেই নির্মমভাবে প্রাণ দিতে হলো শিশু সিনথিয়াকে।

৫২ দিন বয়সি সিনথিয়াকে ড্রামের ভেতর পানিতে চুবিয়ে হত্যা করেছেন মা খালেদা বেগম। গত শুক্রবার সকালে এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটে রংপুরের মিঠাপুকুরে। ঘটনার পরপরই খালেদাকে গ্রেপ্তার করে বিকেলে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। নিহত সিনথিয়া উপজেলার গোপিনাথপুর গ্রামের সুলতান মিয়ার সন্তান। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, অভাবের তাড়নায় অতি কষ্টে সংসার চালাচ্ছিলেন সুলতান মিয়া। তার আরও দুটি মেয়ে আছে। ৫২ দিন আগে তার স্ত্রী খালেদা বেগম আরও একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এতে আনন্দের বদলে খালেদার জীবনে নেমে আসে গঞ্জনা। পরপর তিন কন্যা সন্তান প্রসব করায় পারিবারিকভাবে প্রচণ্ড চাপে পড়েন তিনি। এরই মধ্যে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ে।

শুক্রবার ভোররাতে হঠাৎ করে খালেদা কান্নাকাটি শুরু করেন। বাড়ির লোকজনকে ডেকে জানান, সিনথিয়াকে পাওয়া যাচ্ছে না। প্রতিবেশীরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর পুকুরে ভাসমান অবস্থায় সিনথিয়ার লাশ দেখতে পান। এরপর তড়িঘড়ি করে লাশ দাফনের চেষ্টা করা হয়। 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম দিলীপ জানান, সকালে ঘটনাটি শুনেছি। কী কারণে পুকুরে শিশুটির লাশ গেল সন্দেহ হওয়ায় পুলিশে খবর দেই। পুলিশ বিষয়টি আন্দাজ করতে পেরে খালেদাকে আটক করে।

মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খালেদা সিনথিয়াকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। অভাবী সংসারে মেয়ের জন্ম। স্বামীর গালমন্দ থেকে রক্ষা পেতে মা হয়েও সে নিজের মেয়েকে হত্যা করেছে। 

এ ঘটনায় সুলতান মিয়া হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।


রংপুর/নজরুল/বুলাকী

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : রংপুর, রংপুর বিভাগ
ট্যাগ :