ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রশাসনের তৎপরতায়ও থামছে না জনসমাগম

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-৩১ ৩:৩৮:১২ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-৩১ ৩:৩৮:১২ পিএম

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলাকে লকডাউন ঘোষণা করে জনসচেতনতাসহ সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে মাঠে কাজ করছে সেনাবাহিনী, র‌্যাব, পুলিশসহ উপজেলা প্রশাসন।

তবে, শহর এলাকায় বিধি নিষেধ মেনে চললেও উপেক্ষিত গ্রামাঞ্চলের বাজারগুলো। প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা সত্বেও গ্রামীণ বাজারে কিছুতেই থামানো যাচ্ছে না জনসমাগম।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) কলাপাড়ার বিভিন্ন এলাকা সরেজমিনে ঘুরে করোনা প্রতিরোধের বিপতীতে লোকসমাগমের এমন চিত্র দেখা গেছে।

রোববারে ধানখালীর নোমর হাটে বসেছে জমজমাট সাপ্তাহিক হাট। সোমবারে বিকেলে ধানখালীর কালুরহাটে দেখা গেছে জমজমাট সাপ্তাহিক হাট। মঙ্গলবার কলাপাড়ায় বসেছে জমজমাট সাপ্তাহিত হাট। মহিপুর বন্দরে প্রতি সন্ধ্যায় চলে জনসমাগম। ইটভাটার মালিকরা তাদের ভাটার কার্যক্রম চালু রেখেছেন। প্রতিনিয়ত প্রায় শতাধিক শ্রমিক ভাটায় জড়ো হয়ে ট্রলার কিংবা ট্রলিতে ইট লোড-আনলোড করছে।

একইভাবে, বালু বিক্রির গদিগুলোতেও শতাধিক শ্রমিক দ্বারা বালুর জাহাজে লোড-আনলোড করা হচ্ছে। প্রতিদিন সকালে চৌরাস্তা মাছ বাজারে মহা মিলনমেলা ঘটে মানুষের। বিশেষ করে স্থানীয় এক শ্রেণির নেতাকর্মীদের নিয়ন্ত্রিত হাঁট-বাজারগুলো চালু থাকায় করোনায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সরকারি উদ্যোগ ভেস্তে যেতে বসেছে।

এখনই সাধারণ মানুষের জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে প্রশাসন আরো কার্যকরী পদক্ষেপ না নিলে বড় ধরনের করোনা ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে কলাপাড়া উপজেলা।

কলাপাড়া বন্দর ব্যবসায়ী সমিতির কোাষাধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দিন বিপু জানান, সরকার সবজি বাজার ও মাছ বাজার খোলা রাখতে বলেছে। তবে বার বার জনসমাগম এড়িয়ে কাজ করতে বলা হলেও সাধারণ মানুষ সেটা মানছেন না।

পৌর শহরের গার্মেন্টস ব্যবসায়ী রেহান উদ্দিন রেহান জানান, আমাদের দোকান পাট বন্ধ রেখেছি। কিন্তু এখনও কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গোপনে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। আসলে তাদের মধ্যে সচেতনতার অনেক ঘাটতি রয়েছে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল হাসনাত মো.শহিদুল হক বলেন, জনসমাগম বন্ধে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। ইটভাটার কাজ বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

 

ইমরান/বুলাকী

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : পটুয়াখালি, বরিশাল বিভাগ
ট্যাগ :