ঢাকা, বুধবার, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ থেকে ফিরছে মানুষ, আতঙ্কে কাশিয়ানীবাসী

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-১০ ৪:২৯:৩১ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-১০ ৪:২৯:৩১ পিএম

ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেশি। এসব এলাকায় কর্মরত গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার বাসিন্দাদের অনেকেই নিজবাড়িতে ফিরছেন। এতে কাশিয়ানীতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে বলে মনে করছেন উপজেলাবাসী।

সম্প্রতি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ থেকে ফেরা কাশিয়ানী উপজেলার কামারোল গ্রামের ছয়জনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিন্টু বিশ্বাস।

এদিকে, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কাশিয়ানী উপজেলায় আসা লোকজনের তথ্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাব্বির আহম্মেদ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। এসব এলাকায় করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ায় লোকজন গ্রামের বাড়িতে ফিরছেন। কাশিয়ানী উপজেলাতেও ফিরেছেন অনেকে।

কাশিয়ানীর চাপ্তা গ্রামের পরশ উজির জানান, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, শরীয়তপুর ও মাদারীপুর থেকে লোকজন কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল ইউনিয়নের ঘোনাপাড়া, চাপ্তা ও চরচাপ্তা গ্রামে নিজবাড়িতে ফিরে এলাকায় অবাধে ঘোরাফেরা করছেন। স্থানীয়রা তাদের ঘরে থাকতে বললেও তারা তা শুনছেন না। এতে আতঙ্কিত গ্রামবাসী।

সমাজসেবক মুন্সী ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমিত এলাকা থেকে মানুষ দলে দলে কাশিয়ানীতে আসছেন। এদের নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে পরিস্থিতি বিপজ্জনক হতে পারে।

চাপ্তা গ্রামের টুটুল মিনা বলেন, ইতোমধ্যে গোপালগঞ্জে দুজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এখন বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষজন কাশিয়ানীতে ফেরায় আতঙ্ক বেড়েছে।

গোলাম মোস্তফা সরদার বলেন, করোনা আক্রান্ত জেলার মানুষ গোপালগঞ্জে আসায় এখানে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় আছি। আমরা নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সেলিম উজির বলেন, আসলে আমরা জানি না, কে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত? করোনা আক্রান্ত জেলার মানুষ যাতে আসতে না পারেন, সেজন্য প্রশাসনের দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। যারা চলে এসেছে, তাদের তালিকা করে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। তা না হলে করোনা ঠেকানো সম্ভব হবে না।

কাশিয়ানী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদ বলেন, ইতোমধ্যে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জসহ করোনা সংক্রমণ এলাকা থেকে লোকজন কাশিয়ানীতে প্রবেশ করছে। আমরা খোঁজ-খবর রাখছি। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে যারা কাশিয়ানী উপজেলায় এসেছেন তাদের তথ্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বা মেম্বারকে দেওয়ার জন্য এলাবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছি।


গোপালগঞ্জ/বাদল/রফিক 

       
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : গোপালগঞ্জ, ঢাকা বিভাগ
ট্যাগ :