ঢাকা, সোমবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৬ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রধানমন্ত্রীর সহায়তার টাকা কেটে রাখায় দোকানিকে জরিমানা

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৮ ১০:৫৩:৩৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-২৮ ১১:২০:১৮ পিএম

দেশের ৫০ লাখ মানুষকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আড়াই হাজার টাকা করে ঈদ উপহার দিয়েছেন। মোবাইল ব্যাংকিং নগদ, বিকাশ, রকেটসহ বিভিন্ন মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে সে টাকা পাঠানো হচ্ছে।

ওই টাকার সাথে খরচ বাবদ ৩৬.২৬ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। তবে ক্যাশ আউট করতে গিয়ে গ্রাহকরা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন বিভিন্ন স্থানে। ৩৬.২৬ টাকা ছাড়াও খরচ, ট্যাক্স ইত্যাদি অজুহাতে সহজ সরল মানুষের নিকট থেকে অতিরিক্ত ৫০/১০০ টাকা কেটে রাখার অভিযোগ উঠেছে দোকানীদের বিরুদ্ধে।

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় এমন একটি লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অসীম চন্দ্র বনিক উপজেলা শহরের একটি দোকানে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এ সময় অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় দোকানী উপজেলার বাছিরপুর গ্রামের আলফাজ মিয়ার ছেলে আবুল বাশারকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারায় দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং অভিযোগকারীদের টাকা ফেরৎ দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে জুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে প্রদত্ত লিখিত অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের মোহাম্মদনগর গ্রামের বাসিন্দা রাজন মিয়ার মোবাইলে (০১৭১৫-২৭৩৪৯৯) ও জলিকা বেগমের মোবাইলে (০১৭৭২-৪২৫৩৩৯) নগদ-এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত দুই হাজার ৫৩৬ টাকা আসে।

গত ২৬ মে ক্যাশ আউট করার জন্য তারা জুড়ী বিজিবি ক্যাম্প চত্ত্বরে ফজলুর রহমান শপিং সেন্টারে আবুল বাশারের দোকানে যান। ঐ দোকানী ৩৬ টাকা ছাড়াও বিভিন্ন অজুহাতে রাজন মিয়ার কাছ থেকে ৫০ টাকা কেটে দুই ৪৫০ টাকা ও জলিকা বেগমের নিকট থেকে ১০০ টাকা কেটে দুই হাজার ৪০০ টাকা প্রদান করেন।

আদালত পরিচালনাকালে জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, কামিনীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি কামাল উদ্দিনসহ সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে জুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসীম চন্দ্র বনিক জানান, করোনার কারণে দেশের অসংখ্য মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সরকার এদেরকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। তারই অংশ হিসেবে দরিদ্র মানুষকে মোবাইলে আড়াই হাজার টাকা করে সহায়তা প্রদান করছেন। সাথে খরচও দেওয়া হচ্ছে।

গ্রাহক পুরো আড়াই হাজার টাকা পাবেন। এখান থেকে কোনো টাকা কেটে রাখার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, ‘অভিযোগকারী দুজনের কেটে রাখা টাকা ফেরৎ দেওয়া হয়েছে এবং দোকানীকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

 

সাইফুল্লাহ হাসান/সনি

       
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : মৌলভীবাজার, সিলেট বিভাগ