ঢাকা, সোমবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৬ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

রুবেল কাণ্ড: দুই এসআই ক্লোজড

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৬-০৪ ১১:৪০:০৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৬-০৫ ৯:৪৩:২১ এএম

গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভূক্ত আসামি ও তার বাবার নামের মিল থাকায় এক রুবেলের অপরাধে আরেক রুবেলকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় হাইকোর্টের নির্দেশ ও শিবগঞ্জ থানা পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে বুধবার (৩ জুন) নির্দোষ মো. রুবেলকে নিঃশর্ত মুক্তির আদেশ দেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আবু কাহার।

অপরদিকে এ ঘটনায় বুধবার রাতেই পুলিশের পক্ষ থেকে ওয়ারেন্টতামিল কর্মকর্তা এসআই রনি সাহা ও এসআই আরিফুল ইসলামকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার কালুপুর থেকে গাঁজা সেবনের অভিযোগে ২০১৮ সালের ৬ এপ্রিল পাঁকা ইউনিয়নের চরপাঁকা কদমতলা গ্রামের মন্টু আলীর ছেলে রুবেল আলী ওরফে রুবেল বাবুলকে (২৬) গ্রেপ্তার করা হয়।

শিবগঞ্জ থানার তৎকালীন এসআই আবদুস সালাম ওইদিনই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ২৬ ধারায় রুবেল বাবুলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন (যার মামলা নং- ১৫)। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এর পাঁচদিন পর প্রকৃত আসামি রুবেল জামিনে মুক্তি পেয়ে তিন দফা আদালতে হাজিরা দিয়ে হঠাৎ উধাও হয়ে যান।

ওই বছর ১০ জুলাই এসআই বাবুল ইসলাম আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রুবেল বাবুলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

এরপর চলতি বছরের ১০ মার্চ রাতে ওই গ্রেপ্তারি পরোয়ানামূলে চরপাঁকার মন্টুর ছেলে মো. রুবেলকে (২৩) গ্রেপ্তার করে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কয়েক বছর আগে রাজমিস্ত্রির কাজ করতে গিয়ে ভবন থেকে পড়ে দুই পা ভেঙে যায় মো. রুবেলের। দুই বছর বিছানায় পড়েছিলেন তিনি। অনেক দিন চিকিৎসার পর কিছুটা হাঁটতে পারলেও বাম পায়ে শক্তি নেই তার। অভাবের তাড়নায় পাঁকা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আতাউর রহমানের গ্রামের ফাঁকা বাড়িটি দেখাশোনা করতেন তিনি। সেখান থেকেই তাকে থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

পরবর্তীতে বুধবার (৩ জুন) ‘এক রুবেলের বদলে জেলে আরেক রুবেল’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি হাইকোর্টের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির। এরপর হাইকোর্টের নির্দেশ ও শিবগঞ্জ থানা পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতেই বুধবার সন্ধ্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কারাগার থেকে ছাড়া পান মো. রুবেল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাটির পেছনে প্রাথমিকভাবে জড়িত থাকার অভিযোগে বুধবার রাতেই ওয়ারেন্ট তামিল কর্মকর্তা শিবগঞ্জ থানার এসআই রনি সাহা ও আরিফুল ইসলামকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে ক্লোজড করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) রাতে এ ঘটনার সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ জানান, ওয়ারেন্ট তামিলে দুজনের নাম ও বাবার নাম একই থাকায় এ অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি ঘটে।


জাহিদ মিম্পা/সনি

       
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী বিভাগ