ঢাকা     শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭ ||  ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

‘চাইল্ড মোড' অ্যাপস তৈরি করে তাক লাগালেন তরুণ উদ্যোক্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:২০, ৭ জুলাই ২০২০  
‘চাইল্ড মোড' অ্যাপস তৈরি করে তাক লাগালেন তরুণ উদ্যোক্তা

শিশুদের জন্য নিরাপদ ‘চাইল্ড মোড' অ্যাপস তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ২৪ বছরের তরুণ উদ্যোক্তা রাজশাহীর হাবিবুর রহমান নীল।

নীল রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার ধুরইল গ্রামের ফজর আলী-ফাতেমা আফরোজ দম্পতির ছেলে। তিনি নীলেক্স লিমিটেড নামে একটি আইটি প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার। অল্প বয়সেই  দেশব্যাপি টেক আইকন হিসেবেও  পরিচিতি মিলেছে তার।

নীল জানান, বর্তমান প্রযুক্তির যুগে নেট দুনিয়ায় সব থেকে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে শিশুরা। শিশুদের ভবিষ্যত চিন্তা করে তাদের সামাজিক এবং মৌলিক চরিত্র গঠনের জন্য নিরাপদ ফোন ও ইন্টারনেটের ব্যবহার নিশ্চিত করার চিন্তা থেকেই তিনি উদ্ভাবন করেছেন ‘চাইল্ড মোড’।

শিশু এবং তরুণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে ক্রমবর্ধমান হারে ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়ছে। ডিজিটাল প্রযুক্তি দিন দিন শিশুদের জীবন ও ভবিষ্যৎকে প্রভাবিত করছে। দিন যত এগুচ্ছে শিশুরা অনলাইনে তত বেশি সময় ব্যয় করছে। তাদেরকে অনলাইনে নিরাপদ রাখার উদ্দেশ্যেই এ ধরনের অ্যাপস উদ্ভাবন করা হয়েছে বলে জানালেন নীল।

অ্যাপসটি শিশুদের জন্য কেন প্রয়োজন সেটি বোঝাতে  হাবিবুর রহমান নীল বলেন, ‘শিশুরা ফোন হাতে পেলে ইন্টারনেটে বা ইউটিউবে অনেক কিছু দেখে। ফলে বড়দের ফোনে অজান্তে এমন কিছু ভিডিও, ছবি, ম্যাসেজ বা নোটিফিকেশন থাকে যা শিশুদের জন্য নিরাপদ নয়। শিশুরা যখন ফোন ব্যবহার করে তখন বড়দের অগোচরে এমন কিছু ফাংশনে প্রবেশ করে, যেটি পরবতীতে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে দেয়।'

তিনি বলেন, ‘এ ধরনের সমস্যা থেকে উত্তরণের উপায় হিসেবে কাজ করবে ‘চাইল্ড মোড'। এটি  সক্রিয় করার মাধ্যমে শিশুরা শতভাগ নিরাপদ ফোন ও ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবে এমনটাই প্রত্যাশা করছি।'

অ্যাপসভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে নীল বলেন,  ‘সারাবিশ্বের শতকরা প্রায় ৮০ ভাগ মানুষ বর্তমানে অ্যান্ড্রুয়েড ফোনে নেট দুনিয়ার বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করছে। সাধারণত শিশুদেরকে আমরা আলাদা ফোন ব্যবহার করতে দেইনা। একারণে শিশুরা তাদের বাবা ও মায়ের ফোন বেশি ব্যবহার করে থাকে। একই ফোনে দুই ধরনের  অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার নিশ্চিত করবে অ্যাপসভিত্তিক এই অপারেটিং সিস্টেম।'

তিনি বলেন, ‘চাইল্ড মোড অ্যাপস এ রয়েছে ৫০টির বেশি অ্যাপ্লিকেশন, গেম, সিকিউরিটি টুলস, অনলাইন স্কুল, টিভি, বাংলাদেশের সকল দর্শনীয় স্থানের ভিজুয়্যাল কন্টেন্টসহ অনেক কিছু।  অ্যাপসটি বাচ্চাদের জ্ঞান অর্জনের সাথে সাথে নিরাপদ ইন্টারনেট এবং ফোন ব্যবহারকে আরও নিরাপদ করবে। এটি হবে একটি আনন্দদায়ক শিক্ষামূলক ডিভাইস।'

তিনি বলেন, ‘এই বিশাল কাজ বাস্তবায়ন করতে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। কোনো স্পন্সর না থাকায় দরকার সরকারি সহযোগিতার।'

নীল বলেন, ‘সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২১ সালের শুরুতে পাওয়া যাবে শিশুদের জন্য নির্মিত ঝুঁকিবিহীন নিরাপদ শিক্ষামূলক ‘চাইল্ড মোড’ অ্যাপসটি।

এটি বাজারে আসলে বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে নতুন এক অধ্যায়ের শুভ সূচনা করবে বলে মনে করছেন নীল।

 

রাজশাহী/তানজিমুল /টিপু

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়