ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২২ ১৪২৭ ||  ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

লাইনচ্যুত চারটি বগি উদ্ধার, দুর্ভোগে যাত্রীরা

63 || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:২৮, ১১ জুলাই ২০১৯  

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী : রাজশাহীর চারঘাট উপজেলায় লাইনচ্যুত তেলবাহী ট্রেনের আটটি বগির চারটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টা পর্যন্ত বগিগুলো উদ্ধার করা হয়। এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় বগিগুলো লাইনচ্যুত হওয়ার পর রাত ১০টার দিকে উদ্ধার কাজ শুরু হয়। এ পর্যন্ত ১৪ ঘণ্টায় চারটি বগি উদ্ধার করতে পেরেছেন উদ্ধারকর্মীরা।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত আছেন পশ্চিম রেলের প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেন, প্রধান সংকেত ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশলী অসীম কুমার তালুকদার, রেলওয়ের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক মিজানুর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। বাকি বগিগুলো ঠিক কতক্ষণে উদ্ধার করা সম্ভব হবে তা তারা কেউই নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি।

প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেন রাইজিংবিডিকে বলেন, ক্রেন দিয়ে লাইনচ্যুত বগিগুলোকে শূন্যে উঠিয়ে লাইনে স্থাপন করা হচ্ছে। কিন্তু রাতে বৃষ্টির কারণে উদ্ধার কাজে বেগ পেতে হয়। সবগুলো বগি কতক্ষণ সময়ের মধ্যে উদ্ধার করা সম্ভব হবে তা বলা যাচ্ছে না। তবে আমরা বৃহস্পতিবার রাতের ঢাকাগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা এখনও বাতিল করিনি। আশা করছি, এই সময়ের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে।

বুধবার এই ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার পর রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের রেলযোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়ে। এরপর সব ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। ফলে বুধবার রাতের ঢাকাগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস, বৃহস্পতিবার সকালের খুলনাগামী তিতুমীর এক্সপ্রেস, সাগরদাঁড়ি, কপোতাক্ষ, বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, মধুমতি এক্সপ্রেস, বনলতা এক্সপ্রেস, সিল্কসিটি ও ঈশ্বরদীগামী কমিউটার ট্রেনের যাত্রীরা পড়েছেন দারুণ ভোগান্তিতে।

এদিকে ঢাকা থেকে রাজশাহী অভিমুখে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর ট্রেন সিল্কসিটি নাটোরের আবদুলপুরে এবং বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেন রাজশাহীর আড়ানিতে আটকা পড়ে আছে। এতে পুরো পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে। ট্রেনের যাত্রীরা বাসে উঠে গন্তব্যে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

রাজশাহী রেল স্টেশনের ব্যবস্থাপক আবদুল করিম রাইজিংবিডিকে জানান, যেসব ট্রেনের যাত্রা বাতিল হয়েছে তাদের টিকিটের মূল্য ফেরত দেয়া হচ্ছে। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত তারা ২৬ লাখ টাকা ফেরত দিয়েছেন। তবে হাতে আর নগদ টাকা নেই। তাই টাকাও ফেরত দেয়া হচ্ছে। যাত্রীদের পরে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে। উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রাজশাহীর চারঘাট হলিদাগাছির দিঘলকান্দি ঢালানের কাছে তেলবাহী ট্রেনের ৮টি বগি লাইনচ্যুত হয়। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তেলবাহী ওই ট্রেনটি খুলনা থেকে রাজশাহীর হরিয়ানের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। ট্রেনটি ঈশ্বরদী হয়ে রাজশাহী অভিমুখে যাচ্ছিল। পথে হলিদাগাছিতে লাইনচ্যুত হয়।

ট্রেনটির মাঝখান থেকে বগিগুলো লাইনচ্যুত হয়। তাই পরে আটটি বগি রেখে সামনের অন্য বগিগুলো নিয়ে তেলবাহী ওই ট্রেনটি বুধবার রাতেই রাজশাহীর হরিয়ান রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছায়। রাত পৌনে ১০টার দিকে রিলিফ ট্রেন সেখানে পৌঁছে। তবে বৃষ্টির কারণে উদ্ধার কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়।

ঘটনার পর পশ্চিম রেলের প্রকৌশল বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী আবদুর রশিদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া ঘটনা তদন্তে বিভাগীয় ট্রান্সপোর্ট অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুনকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।  ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে এই কমিটিকে।

 

রাইজিংবিডি/রাজশাহী/১১ জুলাই, ২০১৯/তানজিমুল হক/লাকি

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়