ঢাকা     শুক্রবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১০ ১৪২৭ ||  ০৭ সফর ১৪৪২

মানিকগঞ্জে নদী ভাঙনে ১২ হাজার মিটার ভূমি বিলীন

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:৫৫, ১২ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
মানিকগঞ্জে নদী ভাঙনে ১২ হাজার মিটার ভূমি বিলীন

মানিকগঞ্জ জেলার পদ্মা, যমুনা, পুরাতন ধলেশ্বরী, কালীগঙ্গা এবং ধলেশ্বরী নদীর বিভিন্ন এলাকায় নদী ভাঙনে ১২ হাজার ছয়শ মিটার জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

চলতি বছরে নদী ভাঙনে স্কুল-কলেজ, বাজার, রাস্তা-ঘাট, ডাক বাংলো, বসতভিটাসহ কয়েকশ স্থাপনা হুমকিতে রয়েছে। বন্যার আগে থেকেই এসব নদীর আশোপাশে বিভিন্ন এলাকায় নদী ভাঙন দেখা দেয়। এছাড়া বন্যার পানি কমার সময়ও এসব নদীতে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে।

বিষয়টি জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাইন উদ্দিন।

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিস জানায়, শিবালয় উপজেলায় যমুনা নদীর বাম তীরের ভাঙনে শিবালয় ইউনিয়নের আরিচাঘাট এলাকায় আরিচা ঘাট, জেলা পরিষদের ডাক বাংলো, শিবালয় বাজার, বিদুৎ উন্নয়ন বোর্ড অফিস (পিসি পোল), মসজিদ, আরুয়া ইউনিয়নে কুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাস্তা ও বাড়ি-ঘরে ভাঙন দেখা দেয়।

দৌলতপুর উপজেলায় যমুনা নদীর বাম তীরের ভাঙনে বাচামারা ইউনিয়নে বাঁচামারা বাজার, ২ নম্বর বাঁচামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাঁচামারা উচ্চ বিদ্যালয়, আমিনা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বিবিসি কলেজ, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, বসতভিটা, শুভুদ্ধির বাজার, সাইক্লোন সেন্টার, কবরস্থান, শুভুদ্ধি পাচুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাড়ি-ঘর, চরকাটারি ইউনিয়নের চরকাটারি বাজার, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বসতভিটা, পুরাতন ধলেশ্বরী নদীর বাম তীরের ভাঙনে আমতলী ইউনিয়নের বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়, মসজিদ, আবুডাঙগা বাজার, ভাঙনের কবলে পড়ে।

ঘিওর উপজেলায় পুরাতন ধলেশ্বরী নদীর ডান তীরের ভাঙনে ঘিওর ইউনিয়নের ঘিওর সরকারি কলেজ, ঘিওর বাজার, বালিয়াখোড়া ইউনিয়নের বালিয়াখোড়া উচ্চ বিদ্যালয়, পেচারকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পূর্ব ঘিওরের পাকা রাস্তা, বাড়ি ঘর, মসজিদ, জাবরা ইউনিয়নের জাবরা মন্দির, জাবরা বাজার এবং কালীগঙ্গা নদীর ডান তীরের ভাঙনে এ ইউনিয়নে রমজান আলী উচ্চ বিদ্যালয় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

হরিরামপুর উপজেলায় পদ্মা নদীর বাম তীরের ভাঙনে ধূলশুরা ইউনিয়নের চরমুকদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, ইউনিয়ন পরিষদ অফিস, ধূলশুরা বাজার, বেশ কিছু বাড়ি-ঘর, রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের বাজার, মসজিদ, পানের বরজ, বয়রা ইউনিয়নের আন্ধারমানিক ঘাট, বাড়িঘর, মসজিদ, কবরস্থান হুমকিতে রয়েছে।

সাটুরিয়া উপজেলায় ধলেশ্বরী নদীর বাম তীরের ভাঙনে বরাইদ ইউনিয়নে ফয়জুন্নেসা উচ্চ বিদ্যালয়, বরাইদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মসজিদ, হাফেজিয়া মাদ্রাসা, রাস্তা, বাড়িঘর, ১ নম্বর ছনকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চক মুধুপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ছনকা বাজার, দিঘুলিয়া ইউনিয়নের বাজার, লেবুর বাগান, প্রাথমিক বিদ্যালয়, পুরাতন ধলেশ্বরী নদীর ডান তীরের ভাঙনে তিল্লী ইউনিয়নের তিল্লী বাজার, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, প্রাথমিক বিদ্যালয়, মসজিদ, রাস্তা, বাড়িঘর ভাঙনের কবলে রয়েছে।

মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় কালীগঙ্গা নদীর বাম তীরের ভাঙনে নবগ্রাম ইউনিয়নের বিভিন্ন সংযোগ সড়ক, প্রাথমিক বিদ্যালয়, বেশ কিছু বাড়ি-ঘর, ভাড়ারিয়া ইউনিয়নরে দক্ষিণ চৈল্লা প্রাথমিক বিদ্যালয়, সংযোগ সড়ক, বাজার, ডান তীরের ভাঙনে নবগ্রাম ইউনিয়নের পাঁচবারইল এলাকার মসজিদ, সংযোগ সড়ক, বাড়ি-ঘর, পৌরসভার আন্ধারমানিক বাজার নদী ভাঙনের কবলে রয়েছে। সিংগাইর উপজেলায় কালীগঙ্গা নদীর বাম তীরের ভাঙনে বার্তা ইউনিয়নের বার্তা বাজার, মসজিদ,বাড়ি-ঘরের ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাইন উদ্দিন জনান, জেলার যেসব এলাকায় নদী ভাঙন হয়ে থাকে তা চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব স্থানে স্থায়ী বাঁধ ও নদী ভাঙন রোধে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণের কাজ চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

চন্দন/বুলাকী

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়