Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৩ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

হিলিতে এলো না এলসি করা পেঁয়াজ, পচনের শঙ্কায় দেশের ব‌্যবসায়ীরা  

হিলি (দিনাজপুর) সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:১৪, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:৩৪, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
হিলিতে এলো না এলসি করা পেঁয়াজ, পচনের শঙ্কায় দেশের ব‌্যবসায়ীরা  

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে আজও আসেনি ভারতীয় পেঁয়াজ। এলসি করা ২৫০/৩০০ ট্রাক পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ার শঙ্কা জানিয়েছেন বাংলাদেশি ব‌্যবসায়ীরা। পূর্ব ঘোষণা না দিয়ে ভারত রপ্তানি বন্ধ করায় বিপাকে পড়েছেন হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারকেরা, এলসি করা পেঁয়াজ না আসলে লোকসান গুণতে হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

গতকাল বুধবার এলসি করা পেঁয়াজ বন্দরে প্রবেশ করার কথা থাকলেও আজ বৃহস্পতিবারও বন্দরে প্রবেশ করেনি। গত সোমবার থেকে দেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকা পড়ে আছে এলসি করা ২৫০-৩০০ পেঁয়াজ বোঝাই ভারতীয় ট্রাক। এছাড়া আমদানির জন্য এলসি করা প্রায় ১০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ দেশে আসা নিয়েও দুশ্চিন্তায় পড়েছেন আমদানিকারকেরা।

এদিকে ভারত থেকে পেঁয়াজ আসা বন্ধ হয়ে যাওয়ার বন্দরে পেঁয়াজ প্রতি কেজিতে ৩০ টাকা দাম বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। গত রোববার এই পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকায় পাইকারি বাজারে।

দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা পাইকারদের অভিযোগ, বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রির আশায় অনেক আড়তদার তাদের আড়ত বন্ধ রেখেছেন। অনেক পাইকার পেঁয়াজ না নিয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুন রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘শুধুমাত্র হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকেরা ১০ হাজার টনের মতো পেঁয়াজ আমদানি জন্য ভারতে এলসি করেছেন। যার বিপরীতে ২৫০-৩০০ ভারতীয় ট্রাক পেঁয়াজ নিয়ে ভারতে আটকা পড়েছে। এসব পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাক দেশে প্রবেশ করতে না পারলে পেঁয়াজে পচন ধরে নষ্ট হবে। লোকসান গুনতে হবে তাদের। কিন্তু হঠাৎ করেই ভারত সরকার বন্যার কারণ দেখিয়ে তাদের অভ্যন্তরীণ সংকট ও মূল্যবৃদ্ধির অজুহাতে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে। আমরা চাই আমাদের এলসি করা পেঁয়াজগুলি দেশে পাঠানো হউক।’

মোসলেম উদ্দিন/সাজেদ 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়