RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১০ ১৪২৭ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

শনিবার আসছে ভারতে আটকে পড়া পেঁয়াজ 

হিলি (দিনাজপুর) সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:৫৩, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ০৯:২৩, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
শনিবার আসছে ভারতে আটকে পড়া পেঁয়াজ 

পাঁচ দিন আটকে থাকার পর শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে আসছে ভারতীয় পেঁয়াজ। বাজারে পেঁয়াজের সংকট ও দাম ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার অজুহাত দেখিয়ে হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। সীমান্তের ওপাড়ে আটকা পড়ে হিলি স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীদের দেড় শতাধিক পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাক।

গত রোববার পর্যন্ত টেন্ডার করা এসব ট্রাক ভারতে আটকে থাকায় এখন পেঁয়াজে পচন ধরতে শুরু করছে। পাঁচদিন ওপাড় বন্দরের পার্কিংয়ে আটকে থাকা পেঁয়াজ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। ওপাড়ের রপ্তানিকারকরা বলছেন, শনিবার দুপুর থেকে তারা পেঁয়াজ রপ্তানি করবে। হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক হারুন উর রশিদ হারুন রাইজিংবিডিকে জানান, ‘গত সোমবার ভারত হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষণা করে। ভারত সরকারের ঘোষণার আগেই দেড় শতাধিক ট্রাক পেঁয়াজ ভারত থেকে এলসি করা ছিল বন্দরের ব্যবসায়ীদের। রোববারের আগের এলসি করা পেঁয়াজের ট্রাকগুলো তারা ছেড়ে দেবে বলে জানিয়েছেন ওপাড়ের রপ্তানিকারকরা।’

আমদানিকারক শহীদুল ইসলাম শহিদ জানান, গত সোমবার থেকে হিলি বন্দরের বিপরীতে ভারতের হিলি সীমান্তে পেঁয়াজ ভর্তি ট্রাকগুলো আটকে থাকায় সেগুলো ইতিমধ্যেই নষ্ট হতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে অর্ধেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে। তাছাড়া শনিবার বা রোববার ট্রাকগুলো দেশে ঢুকলেও অর্ধেকের বেশি পেঁয়াজ আর খাওয়ার উপযুক্ত থাকবে না। এতে প্রতি ট্রাকে ব্যবসায়ীদের ৫ থেকে ৬ লাখ টাকার লোকসান হবে। তিনি বলেন, ‘চারশ ডলারে ক্রয় করা পেঁয়াজে প্রতি কেজিতে ৪২ টাকা খরচ পড়েছে।’

ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বরাত দিয়ে বাবু বলেন, ‘বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় ভারতের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে গেছে। ওই দেশের কৃষকরা ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না। দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে পেঁয়াজের দাম পড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে পেঁয়াজ নিয়ে দেশটির অভ্যন্তরে একটি বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টিও শুরু হয়েছে।’ভারতের বেঙ্গালুরু, নাসিক, ইন্দোর অঞ্চলের কৃষকরা ইতোমধ্যেই বলে রেখেছে, পেঁয়াজ রপ্তানি শুরু না করলে তারা ভারতের বাজারেই পেঁয়াজ বিক্রি করবেন না।

হিলি বন্দর ব্যবসায়ী নুরুজ্জামান হোসেন রাইজিংবিডিকে জানান, হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকদের ১৫০ ট্রাক পেঁয়াজ দেশে প্রবেশের অপেক্ষায় লোডিং অবস্থায় ভারতের বিভিন্ন সড়কে দাঁড়িয়ে রয়েছে। লোডিং থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত ৯-১০ দিন পার হয়ে যাওয়ায় অতিরিক্ত গরম ও বৃষ্টির কারণে এসব পেঁয়াজে পচন ধরেছে। দুই একদিনের মধ্যে এসব পেঁয়াজ আমদানি না হলে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন ব্যবসায়ীরা।

দিনাজপুর/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়