RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৯ ১৪২৭ ||  ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

টাঙ্গাইলে পঞ্চম দফার বন্যায় কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫১, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:৫২, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
টাঙ্গাইলে পঞ্চম দফার বন্যায় কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

টাঙ্গাইলে পঞ্চম দফার বন্যায় কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পাঁচ উপজেলার ৮০ হাজার কৃষকের ৬৭ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে টাঙ্গাইল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সত্রে জানা গেছে- চতুর্থ দফার বন্যার রেশ না কাটতেই টাঙ্গাইলে আঘাত হেনেছে পঞ্চম দফা বন্যা। এতে টাঙ্গাইল সদর, ভূঞাপুর, নাগরপুর, দেলদুয়ার ও কালিহাতী উপজেলায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। গত দুই দিনে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও পানির নিচে রয়েছে আউশ, আমন, বিভিন্ন সবজি, আখ ও কলা। এতে করে দিশেহারা হয়ে পড়েছে কৃষকরা। 

চলতি বন্যায় টাঙ্গাইল সদর, ভূঞাপুর, নাগরপুর, দেলদুয়ার ও কালিহাতী উপজেলার ৮০ হাজার কৃষক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন। এসব কৃষকের এক হাজার ৭ হেক্টর জমির আমন বীজতলা, তিন হাজার ২৬৭ হেক্টর জমির বোনা আমন, ৭১৯ হেক্টর জমির আউশ, এক হাজার ৩৯২ হেক্টর জমির সবজি, ১৮৫ হেক্টর জমির কলা বাগান, ৪৯ হেক্টর জমির লেবু ও ৪৯ হেক্টর জমির আখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

এতে কৃষকের ক্ষতি হয়েছে ৬৭ কোটি টাকা। কয়েক দফা বন্যার ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে কৃষকরা চড়া দামে রোপা আমনের চারা কেনেন। তা এখন পানির নিচে।

কালিহাতী উপজেলার সরাতৈল গ্রামের কৃষক আক্কাস আলী বলেন, ‘ধারদেনা করে চড়া দামে চারা কিনেছিলাম। ৫০ হাজার টাকা খরচ করে তিন বিঘা জমিতে রোপা আমন লাগিয়েছি। সেসব চারা এখন পানির নিচে। এখন কীভাবে টিকে থাকব?’

এসব এলাকার কয়েক হাজার হাজার কৃষকের স্বপ্ন এখন পানির নিচে। সবাই তাকিয়ে রয়েছেন সরকারি সহযোগিতার আশায়।  

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা কৃষি অফিসার জিয়াউর রহমান জানান, শেষ সময়ের বন্যায় টাঙ্গাইল সদর, ভূঞাপুর, নাগরপুর, দেলদুয়ার ও কালিহাতী উপজেলার কৃষকদের পথে বসিয়ে দিয়েছে। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।

কাওছার/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়