Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪২৭ ||  ১৯ রজব ১৪৪২

চীনা নাগরিক হত্যা: ২ আসামির ৭ দিনের রিমান্ড

পিরোজপুর সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৬, ৮ অক্টোবর ২০২০  
চীনা নাগরিক হত্যা: ২ আসামির ৭ দিনের রিমান্ড

পিরোজপুরে বেকুটিয়ার কঁচা নদীতে নির্মাণাধীন অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর কর্মরত চীনা নাগরিক লাওফান (৫৮) হত্যা মামলায় সিরাজ শেখ ও রানা সেখকে সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বিকেলে তাদেরকে আদালতে নিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে বুধবার (৬ অক্টোবর) রাতে ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর সিকিউরিটি ইনচার্জ কাও চিয়েন হুয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের নামে পিরোজপুর সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

রাত আড়াইটার দিকে পিরোজপুর সদরের গুয়াবাড়িয়া ও কুমারখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 
গ্রেপ্তারকৃতরা সদর উপজেলার গুয়াবাড়িয়া এলাকার ছত্তার শেখের ছেলে সিরাজ শেখ ও কুমারখালী এলাকার বাবুল শেখের ছেলে রানা শেখ। 

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান জানান, বর্তমানে পিরোজপুরে ৪১ জন চীনা নাগরিক বেকুটিয়ার কঁচা নদীতে নির্মাণাধীন অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রি সেতুতে কর্মরত আছেন। 

সম্ভবত টাকা ছিনতাইয়ের জন্যই চীনা নাগরিক লাওফানকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ব্যাগ উদ্ধার করে, যার মধ্যে ৫১ হাজার টাকা পাওয়া গেছে। 

পুলিশ সুপার আরও জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামিদের আদালতে প্রেরণ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তদন্ত শেষে বিস্তরিত জানানো হবে।

এদিকে লাও ফান হত্যার ঘটনার খবর শুনে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা থেকে পিরোজপুরে পৌঁছান। মন্ত্রী দুপরে স্থানীয় সার্কিট হাউসে জেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাব, কোস্টগার্ড এবং বেকুটিয়ার কঁচা নদীতে নির্মানাধীন ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রি সেতুর কর্মরত চিনের নাগরিকদের সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক করেন।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ উচ্চ পর্যায় থেকে পুরো বিষয়টি মনিটরিং করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই জোরালো সন্দেহভাজন মূল আসামি দুই জনকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালে দ্রুততম সময়ে বিচার করে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হবে।’

উল্লেখ্য, নির্মাণাধীন ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর কুমিরমারা এলাকায় অবস্থিত চায়না ব্যারাক থেকে কর্মচারীদের বেতনের টাকা নিয়ে চীনা নাগরিক লাও ফান সেতুর নির্মাণ কাজের দিকে যাওয়ার পথে তাকে ছুরিকাঘাত করে। পরে স্থানীয়রা ও নির্মাণাধীন অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী ব্রিজের কর্মকতারা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত‌্যু হয়।

শুভ রায়/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়