RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৭ ||  ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

গাজীপুরে পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু, সহকর্মীদের সড়ক অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪১, ২৪ অক্টোবর ২০২০  
গাজীপুরে পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু, সহকর্মীদের সড়ক অবরোধ

গাজীপুরে একটি পোশাক কারখানায় এক শ্রমিক অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (২৪ অক্টোবর) দুপুরে মারা গেছে। পরে ছুটি পেতে দেরি হওয়ায় সঠিক সময়ে চিকিৎসা না পেয়ে তার মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ তুলে বিকেলে তার সহকর্মীরা বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেছে।

নিহত শ্রমিকের নাম মজিদুল ইসলাম (৩২)। তিনি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানার চাঁদপুর সিঙ্গা গ্রামের আনসার আলীর ছেলে। তিনি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভোগড়া এলাকার ভাড়া থেকে স্থানীয় পেয়ারাবাগান এলাকার জিম এন্ড জেসী কম্পোজিট লিমিটেড পোশাক কারখানার সুয়িং অপারেটর পদে চাকরি করতেন।

বাসন থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ও স্থানীয়রা জানান, মজিদুল ইসলাম শনিবার সকাল ৮টায় কারখানায় কাজে যোগদানের কিছুক্ষণ পর বুকে ব্যথা অনুভব করতে থাকেন। পরে তিনি চিকিৎসার জন্য লাইন ইনচার্জের কাছে ছুটি চান। তখন কারখানায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এক পর্যায়ে তাকে কারখানার বাইরে যাওয়ার জন্য গেটপাশ দেওয়া হলে সকাল ৯টার দিকে তিনি কারখানা থেকে বের হয়ে ভাড়া বাসায় চলে যান। বুকের ব্যথা বেড়ে গেলে বাসার মালিক তাকে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১২টার দিকে মজিদুল মারা যায়।

পরে মজিদুলের লাশ কারখানায় এনে শ্রমিকরা জানাজার নামাজ আদায় করেন। জানাজা শেষে শ্রমিকরা কাজে যোগ না দিয়ে কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ শুরু করে।

ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, কারখানা কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ছুটি পেতে দেরি হওয়ায় সঠিক সময়ে চিকিৎসার অভাবে মজিদুলের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে শ্রমিকরা বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কারখানার পার্শ্ববর্তী ঢাকা-বাইপাস সড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। 

তিনি জানান, এ সময় মৃত্যু সঠিক কারণ নির্ণয়ের জন্য লাশের ময়না তদন্ত করানো ও মামলা দেওয়ার কথা বলা হলেও শ্রমিকরা তাতে রাজি হয়নি। পরে পুলিশের মধ্যস্থতায় কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শ্রমিক নেতাদের আলোচনায় বিষয়টি মিমাংসা হলে শ্রমিকরা পৌনে এক ঘণ্টা পর অবরোধ তুলে নেয়। লাশ দাফনের জন্য নিহতের গ্রামের বাড়ি পাঠানো হয়েছে। 

হাসমত/বকুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়