RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ১০ ১৪২৭ ||  ০৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

টাঙ্গাইলে স্বামীর বিচার চেয়ে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:১১, ১৭ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:১২, ১৭ নভেম্বর ২০২০
টাঙ্গাইলে স্বামীর বিচার চেয়ে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন (ইনসেটে অভিযুক্ত স্বামী মেহেদী হাসান বাবু)

স্বামীর অত্যাচার, নির্যাতন, প্রতারণা, অর্থ আত্মসাতের বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার বাবুপুর গ্রামের এক গৃহবধূ। 

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে গৃহবধূ আফরোজা আক্তার লিমা জানান, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বরুহা গ্রামের আতোয়ার রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান বাবুর সঙ্গে ২০১৩ সালের ১ মার্চ ৩ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে হয় তার। তাদের ঘরে এক মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। কন্যার বর্তমান বয়স চার বছর। 

লিমা জানান, বিয়ের পর থেকে ধীরে ধীরে তার স্বামীর চরিত্রিক নানা খারাপ দিক স্পষ্ট হতে থাকে। স্বামীর অনৈতিক ইচ্ছা পূরণে প্রায়ই তাকে অসহ্য নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। তারপরও মেয়ের কথা চিন্তা করে তিনি সংসার চালিয়ে গেছেন। এরমধ্যে তার কাছে গোপন রেখে ২০১৯ সালের ২৩ এপ্রিল স্বামী মেহেদী তাকে তালাক দেন। অথচ তা গোপনে রেখেই চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তার সঙ্গে দাম্পত্য জীবন চালিয়ে যান। এ সময়ের মধ্যে বিদেশ যাওয়ার কথা বলে তাকে বাপের বাড়ি থেকে পাঁচ লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। মেয়ের সুখের কথা ভেবে এক লাখ টাকা দেয়া হয় এবং আরো দুই লাখ টাকা বিদেশ যাওয়ার সময় দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়। এ ছাড়া বিয়ের সময় বাপের বাড়ি থেকে দেওয়া তার চার ভরি ওজনের স্বর্ণালঙ্কারও আত্মসাৎ করেন মেহেদী।

তিনি জানান, মেহেদী এরমধ্যেই আরেকটি বিয়েও করেন। 

গৃহবধূ লিমা জানান, পরবর্তীতে তাকে তালাক দেওয়ার কথা জানতে পারেন। স্থানীয় সিলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু তাতে কোন মীমাংসা হয়নি। ফলে গত ২২ ফেব্রুয়ারি তিনি স্বামী মেহেদী হাসান বাবুকে আসামি করে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। কিন্তু পিবিআই সঠিক তদন্ত না করে উল্টো রিপোর্ট দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন। 

এজন্য তিনি পিবিআই’র রিপোর্ট বাতিল করে পুনরায় তদন্তের দাবি জানান এই  গৃহবধূ।

সংবাদ সম্মেলনে আফরোজা আক্তার লিমার শিশুকন্যা আনহা, মা ফরিদা পারভীনসহ তার স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।

আবু কাওছার /টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়