RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৩ ১৪২৭ ||  ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বদরগঞ্জ পৌরনির্বাচন: এখনও মাঠে নামেননি অনেকে 

নজরুল মৃধা, রংপুর || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:০৯, ২৭ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১০:১৩, ২৭ নভেম্বর ২০২০
বদরগঞ্জ পৌরনির্বাচন: এখনও মাঠে নামেননি অনেকে 

আগামী ২৮ ডিসেম্বর দেশের ২৫টি পৌরসভার সঙ্গে রংপুরের বদরগঞ্জ পৌরসভায়ও ভোটগ্রহণ হবে। গত ২২ নভেম্বর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর কোনো কোনো প্রার্থী এরই মধ‌্যে মাঠে নামলেও অনেকের উপস্থিতি নেই। যে কারণে নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত কে বা কারা লড়ছেন তা নিয়ে ভোটারদের মধ‌্যে সংশয় তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, এ পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান মেয়রসহ তিনজন মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছেন। এছাড়া বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দুইজনের নাম শোনা যাচ্ছে।

নিজের অবস্থান জানান দিতে এরইমধ‌্যে মনোনয়ন প্রত‌্যাশী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক চৌধুরী টুটুল এবং উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক হাসান তবিকুর চৌধুরী পলিন মাঠে নেমেছেন। তারা সম্পর্কে চাচাতো-জ্যাঠাতো ভাই। 

অপরপ্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র উত্তম কুমার সাহা এখনও ‘চুপচাপ’ রয়েছেন। তবে চারবারের মেয়র এ প্রার্থী এবারও ‘আত্মবিশ্বাস’ নিয়ে প্রতীক পেয়ে নির্বাচনে জয়ের ব‌্যাপারে আশাবাদ ব‌্যক্ত করেছেন।

এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নাম শোনা যাচ্ছে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বদরগঞ্জ মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক আজিজুল হকের। গত দুই নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অল্প ভোটে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কাছে হেরে যান তিনি। তবে তফসিল ঘোষণা হলেও তাকে এখনও মাঠে দেখা যায়নি। যদিও গত দুর্গোৎসবের সময় পোস্টার-ফেস্টুন টানিয়ে পৌরবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

এছাড়া বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ফিরোজ শাহর নাম শোনা যাচ্ছে। তবে এখনও নির্বাচনের মাঠে তার উপস্থিতি চোখে পড়েনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক টুটুল চৌধুরী বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন থেকে দু’বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান। পৌর নির্বাচনে অংশ নিতে তিনি গত রোববার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মেহেদী হাসানের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। টুটুল চৌধুরী বলেন, ‘আমি আশা করছি নেত্রী ভুল করবেন না। আমাকে মনোনয়ন দেবেন। আমি নৌকা প্রতীক পেলে নেত্রীকে এ পৌরসভা উপহার দিতে পারবো ইনশাআল্লাহ্’।

হাসান তবিকুর চৌধুরী পলিন বলেন, আওয়ামী লীগের টিকিট নিয়ে বর্তমান মেয়র টানা চারবার বদরগঞ্জ পৌর সভার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু তিনি দল ও জনগণের জন্য কিছুই করেননি। তিনি পৌরসভায় ব্যাপক অনিয়ম-দুর্নীতি করেছেন। একারণে ভোটাররা এবার তাকে চাচ্ছে না। তারা আওয়ামী লীগ থেকে নতুন মুখ দেখতে চায়। আমি মানুষের পাশে ছিলাম, আছি এবং থাকবো।’

যদি দল থেকে মনোনয়ন না পান তাহলে কি করবেন? প্রশ্নে তিনি বলেন, দলের বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কারণ আওয়ামী লীগ পরিবারে আমার জন্ম।

নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে বর্তমান মেয়র উত্তম কুমার সাহা বলেন, ‘আমি কোনো অনিয়ম-দুর্নীতি করিনি। যদি করতাম তাহলে জনগণ টানা চারবার মেয়র নির্বাচিত করতো না। আশা করি মনোনয়ন চূড়ান্তে নেত্রী ভুল করবেন না। ’নেত্রী যাকে ভালো মনে করে মনোনয়ন দেবেন আমি তার পাশেই থাকবো বলেও জানান তিনি।

আর ভোটাররা বলছেন, প্রার্থী বুঝেই ব‌্যালটে সিল মারা হবে। যিনি আমাদের পাশে ছিলেন, থাকবেন তাকেই আমরা বেছে নেবো। সেজন‌্য প্রার্থীদের মাঠে নামতে হবে। উপস্থিতি জানান দিতে হবে।

বর্তমানে পৌরসভার সংখ্যা ৩২৯টি। এর মধ‌্যে গত ২২ নভেম্বর ২৫ পৌরসভার নির্বাচনি তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।  ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।  মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময় ১ ডিসেম্বর।  বাছাই ৩ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর।

রংপুর/জেডআর

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়