Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮ ||  ০৫ রমজান ১৪৪২

গৃহবধূ হত্যার পৌনে ২ মাস পর মামলা

ভোলা সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩২, ২ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৫:৩৪, ২ জানুয়ারি ২০২১
গৃহবধূ হত্যার পৌনে ২ মাস পর মামলা

ভোলার চরফ্যাশনে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দীর্ঘ ১ মাস ২২ দিন পর হত্যা মামলা হয়েছে।

শুক্রবার (১ জানুয়ারি) নিহত খাদিজা নাসরিনের ভাই সাইফুল ইসলাম রুবেল বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে এ হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনির হোসেন।

আসামিরা হলেন— খাদিজা নাসরিনের স্বামী কামাল হোসেন, শ্বশুর আবুল হোসেন দেওয়ান, শাশুড়ি তাহেরা খাতুন, দেবর রাসেল, দেবরের স্ত্রী তামান্না ও ননদ রুমা।

জানা যায়, চরফ্যাশন সরকারি কলেজের অফিস সহকারী খাদিজা নাসরিনকে গত বছরের ২২ নভেম্বর রাতে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন শ্বাসরোধে হত্যার পর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে লাশ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। এরপর তারা বাসা থেকে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা বিষয়টি পুলিশকে জানালে তারা ঘরের দরজা খুলে মরদেহ উদ্ধার করে।

মরদেহটি ফ্যানে ঝুলছিল কিন্তু তার পা শূন্যে ছিলো না। একটি চেয়ারে হাঁটুভর করা অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এরপর মরদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। দীর্ঘ ১ মাস ২২ দিন পর রিপোর্ট আসে। রিপোর্টে বলা হয়েছে- খাদিজা আত্মহত্যা করেননি, তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

খাদিজার ভাই সাইফুল ইসলাম রুবেল বলেন, ‘আমরা এতদিন ময়নাতদন্তের রিপোর্টের অপেক্ষায় ছিলাম। আমার বোনকে হত্যা করা হয়েছে। এ কারণে খাদিজার স্বামীসহ ছয়জনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করেছি।’

ওসি মনির হোসেন জানান, ময়নাতদন্তে শ্বাসরোধে হত্যা এসেছে।  নিহতের ভাই বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেছে। এ মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মালেক/বুলাকী

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়