Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৯ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২৪ ১৪২৭ ||  ২৪ রজব ১৪৪২

গার্মেন্টেসের স্টাফ বাসে ডাকাতি, গ্রেপ্তার ৫

সাভার প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০৫, ২১ জানুয়ারি ২০২১  
গার্মেন্টেসের স্টাফ বাসে ডাকাতি, গ্রেপ্তার ৫

গার্মেন্টসের স্টাফ বাসে যাত্রী বেশে ডাকাতির ঘটনায় পাঁচ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই ঢাকা জেলা পুলিশ। 

বুধবার (২০ জানুয়ারি) গভীর রাতে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানার দুর্গম চর বাচা মরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। 
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- দৌলতপুর থানার মো. সুমন মিয়া (২৫), মো. শরীফ মোল্লা (২০), মো. মুহিত শেখ (২২), মো. আলমগীর হোসেন (২৮) ও মো. রাজীব হোসেন (২১)। 

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ২৪ জুলাই রাত আনুমানিক ২টার দিকে গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাট যাওয়ার জন্য সাভারের হেমায়েতপুর বাস স্ট্যান্ড থেকে একটি অফিস স্টাফ লেখা বাসে ওঠেন মামলার বাদী মাইদুল ইসলাম। বাসে ওঠার সাথে সাথে বাস চালকসহ অজ্ঞাত নামা ৭/৮ জন লোক বাদীর হাত, পা, চোখ বেঁধে বাসের মাঝে ফেলে এলোপাথাড়ি মারধর করে। সেসময় তার কাছ থেকে মোবাইল সেট, কাপড় চোপড়, নগদ টাকা এবং বিকাশে থাকা টাকাসহ প্রায় ২৬ হাজার টাকা কেড়ে নেয়। তারা বাদীর হাত-পা বেঁধে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় সাভার থানার তুরাগ নদীর পাড় সংলগ্ন রিকু ফিলিং স্টেশনের বিপরীত পাশে ফেলে চলে যায়। 

এ ব্যাপারে ভিকটিম মাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে সাভার থানায় অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনকে আসামি করে একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করে। মামলা নম্বর– ৫৬, তারিখ- ২৫/১০/২০২০ খ্রি., ধারা- ৩৯৫/৩৯৭ দঃ বিঃ।  

মামলাটি গ্রহণ করে পিবিআই ঢাকা জেলার উপ পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) সালেহ ইমরানকে তদন্ত ভার প্রদান করেন। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সালেহ ইমরান জানান, গত কোরবানীর ঈদের কিছুদিন আগে এই গ্রুপটি গার্মেন্টসের স্টাফ বাস নিয়ে ডাকাতিতে নামে। মূলত গার্মেন্টস ছুটির পর শ্রমিকদের পৌঁছে দেওয়ার নামে মধ্যরাতে তারা এই কাজটি করে। বাসটির চালক লালন সরদার। এর আগে লালনকে গ্রেপ্তার করে তার কাছ থেকে বাদীর মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। সে আদালতে দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

তিনি জানান, ওই ঘটনায় ১১ জন ডাকাত যাত্রীবেশে গাড়িতে ছিল। লালনকে গ্রেপ্তারের পর ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যান্য আসামিরা আত্মগোপনে চলে যায়। অবশেষে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানার দুর্গম চর বাচা মরা এলাকা থেকে উক্ত চক্রের মূল হোতা আলমগীরসহ পাঁচ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পলাতক অন্যান্য ডাকাতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেও জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা।

সাব্বির/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়