Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

নিজ সংস্কৃতিতে মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করলো ওড়াওঁ সম্প্রদায়

মঈনুদ্দীন তালুকদার হিমেল, ঠাকুরগাঁও || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৪:০১, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০৯:২৮, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
নিজ সংস্কৃতিতে মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করলো ওড়াওঁ সম্প্রদায়

নিজ সাংস্কৃতিতে নেচে গেয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করলো ঠাকুরগাঁওয়ের ওড়াওঁ সম্প্রদায়।

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঠাকুরগাঁও সাঁওতাল প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ওড়াওঁ নাচ ও গানের তালে আয়োজিত অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে দিবসটি উদযাপন করে স্থানীয় ওড়াওঁ সম্প্রদায় গোষ্ঠী। তাদের এই ঐতিহ্যবাহী নাচ ও গানে মুগ্ধ হয় অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথি ও বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে আসা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অরুনাংশু দত্ত টিটো বলেন, ‘এদের এই ভিন্নধর্মী গান ও নাচ বেশ ভালো লেগেছে। তাদের পরামর্শ দিয়েছি প্রতিটি সুযোগেই যাতে তারা এসকল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এর জন্যে সবরকম সহযোগিতা করবো আমরা।’ 

জেলা তথ্য বাতায়নের সূত্র মতে, ঠাকুরগাঁও জেলায় মোট ৪৩১টি ওড়াওঁ সম্প্রদায়ের পরিবার বাস করে। যার মধ্যে ৩৪৫টি পরিবারের বসবাস সদর উপজেলায়। 

সদরের ওড়াওঁ পল্লী ঘুরে দেখা যায়, এদের জীবনযাত্রা, শিক্ষা, কর্ম ও চলাফেরা আধুনিক সমাজের সাথেই। তারাও বর্তমান আধুনিক সমাজের সাথে পরিচিত। তবে এই সম্প্রদায় তাদের নিজ সাংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে লালন করতে জানে। নিজেদের প্রতিটি উৎসব অনেক জমকালোভাবে পালন করে। পাশাপাশি দেশের প্রতিটি দিবসেও অংশীদার হতে ভুলে না। উদযাপন করে থাকে নিজেদের মতো করেই। নিজের সংস্কৃতির প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখে। 

ঠাকুরগাঁওয়ের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করা প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুল লতিফ জানান, ওড়াওঁ গোষ্ঠীর মানুষেরা অনেক সহজ-সরল প্রকৃতির। তবে আধুনিকতার ছোঁয়ায় তারাও সমাজের সাথে মিশে গেছে। তাদের সন্তানেরাও এখন স্কুল কলেজে যায়। বিভিন্ন ব্যবসা ও চাকুরিতে তারাও সম্পৃক্ত হচ্ছে। তবুও তাদের নিজ সংস্কৃতি ললন করার এই নীতি সত্যি মুগ্ধ করার মতো।

ঢাকা/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে