Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

গৌরীপুরে মেয়রের ওপর হামলার অভিযোগে ব্যবসায়ীদের হরতাল

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৫৮, ৮ মার্চ ২০২১  
গৌরীপুরে মেয়রের ওপর হামলার অভিযোগে ব্যবসায়ীদের হরতাল

ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের ওপর হামলার প্রতিবাদে হরতাল পালন করেছে পৌর শহরের বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন।

সোমবার (৮ মার্চ) সকাল ৬ টা থেকে বেলা ২ টা পর্যন্ত আধাবেলার হরতাল পালিত হয়।

গৌরীপুর কাচা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, মেয়রের উপর হামলার প্রতিবাদে সকল ব্যবসায়ী সমিতি একযোগে এই হরতাল কর্মসূচির ঘোষণা দেয়।  শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল পালিত হয়েছে।

হরতালে গৌরীপুর পৌর শহরের সকল দোকান বন্ধ রাখা হয়। গৌরীপুর থেকে কোন বাস ছেড়ে যায়নি জেলা শহরে। রিকশা, অটোরিকশাও বন্ধ ছিল। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। পায়ে হেঁটে তারা বিভিন্ন গন্তব্যে পৌঁছায়। অনেকে আবার বাড়ি ফিরে যায়।

গৌরীপুর থানার ওসি খান আবদুল হালিম সিদ্দিকী বলেন, ব্যবসায়ী সংগঠন দোকান না খোলার সিন্ধান্ত নিয়েছে। কেউ ব্যক্তিগতভাবে দোকান বন্ধ রাখলে জোর করে খোলানোর সুযোগ নেই। 

উল্লেখ্য, রোববার (৭ মার্চ) দুপুরে পৌরসভার কাছে মেয়র ও ওই আসনের সাংসদের ছেলে তানজির আহমেদ ওরফে রাজিবের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে এমপিপুত্রের বহরের কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। অপরদিকে মেয়র অভিযোগ করেন, তাকে লক্ষ্য করে দুই রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়েছে। এ সময় তার দুই কর্মী আহত হয়েছেন। এনিয়ে তিনি বিকেলে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন।

এদিকে রোববার রাত ৮টার দিকে ময়ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এমপি নাজিম উদ্দিন বলেন, গৌরীপুরে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন মেয়র। নৌকার কথা বললেই হামলা হয়। দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার পথে মেয়রের নেতৃত্বে তার গাড়িবহরে হামলা হয়েছে।

মিলন/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে