Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২২ জুন ২০২১ ||  আষাঢ় ১০ ১৪২৮ ||  ১০ জিলক্বদ ১৪৪২

নরসিংদীর হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতক উদ্ধার

নরসিংদী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩৭, ১০ মে ২০২১  
নরসিংদীর হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতক উদ্ধার

নরসিংদীতে হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়ার ১৫ ঘণ্টা পর দুই দিন বয়সী নবজাতককে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (৯ মে) রাত ২টার দিকে পৌর শহরের ব্রাহ্মন্দী মহল্লার মালাকার মোড়ের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে নবজাতকটিকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পরই ওই নবজাতককে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে পুলিশ। তবে চুরির দায়ে অভিযুক্ত নারীকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

এর আগে রোববার বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালটির দ্বিতীয় তলার বহির্বিভাগ থেকে চুরি হয় এই নবজাতক। দুইদিন বয়সী এই ছেলে শিশুটিকে ঠাণ্ডাজনিত সমস্যায় ভুগতে থাকায় চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়েছিলো। চুরি হওয়ার পরপরই পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে উদ্ধারে তৎপর হয়।

শিশুটি আনিস মিয়া ও সুমাইয়া আক্তার দম্পতির। দুই মাস আগে সন্তান সম্ভবা সুমাইয়া আক্তারকে স্বামীর বাড়ি ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে নরসিংদীতে বাবার বাড়িতে আসে। নরসিংদী সদর উপজেলার মহিষাশুড়া ইউনিয়নের চান্দেরপাড়া গ্রামে তার বাবার বাড়ি ।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানান, নরসিংদী সদর হাসপাতাল সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শুক্রবার (৮ মে) এই শিশুর জন্ম হয়। পরে ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা দেখা দেওয়ায় রোববার বেলা ১১টার দিকে শিশুটিকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন তার নানি। হাসপাতালটির ২য় তলায় বহির্বিভাগে রোগীর লম্বা সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে চিকিৎসকের অপক্ষায় ছিলেন তারা। এ সময় সিরিয়াল এগিয়ে আনার চেষ্টা করার জন্য নবজাতকের নানিকে পরামর্শ দেন পাশে থাকা অজ্ঞাত এক নারী। তার পরামর্শে নাতিকে ওই নারীর কোলে দিয়ে সিরিয়ালের খবর নিতে তিনি সামনে এগিয়ে যান। এই সুযোগে কয়েক মিনিটের মধ্যেই ওই শিশুটিকে নিয়ে উধাও হয়ে যান অজ্ঞাত ওই নারী।

পুলিশ জানায়, চুরি হয়ে যাওয়ার পরপরই হাসপাতালটির সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে অভিযুক্ত ওই নারীকে চিহ্নিত করেছি। এর মধ্যে শনিবার দুপুরে চুরি হওয়া শিশুটির নানি নরসিংদী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরে রোববার রাতেই অভিযানে নামে পুলিশ। রাত দুইটার দিকে নরসিংদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউর রহমানের নেতৃত্বে মালাকার মোড়ের একটি বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

যার হেফাজত থেকে শিশুটি উদ্ধার হয়- তিনি জানান, চুরি করা ওই নারী নবজাতকটিকে তার কাছে রেখে গেছেন। হেফাজতে রাখা নারীকে আটক করা হয়েছে। পরে নবজাতককে তার মা সুমাইয়া আক্তারের কোলে তুলে দেওয়া হয়।

উদ্ধারের পর নবজাতকের মা সুমাইয়া আক্তার জানান, আমার বুকের ধন আমি ফিরে পাইছি, আমি এতেই খুশি। যে নারী আমার ছেলেকে চুরি করেছিল আমি তার বিচার চাই।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ আমিরুল হক শামীম জানান, এর আগে আমাদের এই হাসপাতালে নবজাতক চুরির ঘটনা কোনদিন ঘটেনি। অভিযুক্ত ওই নারীকে চিহ্নিত করে নবজাতক উদ্ধার করা গেছে, এটাই আনন্দের। উদ্ধারের পর নবজাতক ও তার মাকে এই হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

নরসিংদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউর রহমান জানান, প্রযুক্তির সহায়তায় ও সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে নবজাতক চুরি করা নারীকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। তবে যে নারী নবজাতক চুরি করেছে তাকে পাওয়া যায়নি। যে নারীর হেফাজত থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করেছি তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। নবজাতক চুরি করা নারীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এইচ মাহমুদ/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়