Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৫ আগস্ট ২০২১ ||  শ্রাবণ ২১ ১৪২৮ ||  ২৪ জিলহজ ১৪৪২

চট্টগ্রামে রাত ৮টার সব দোকানপাট বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫৯, ২২ জুন ২০২১  
চট্টগ্রামে রাত ৮টার সব দোকানপাট বন্ধ

স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। তিনি জানান, এই অবস্থায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকা ও জেলার সব উপজেলায় বুধবার (২৩ জুন) থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত রাত ৮টার পর ওষুধের দোকান ছাড়া সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ থাকবে।

মঙ্গলবার (২২ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।  

জেলা প্রশাসক জানান, মহানগরের পাশাপাশি জেলার ফটিকছড়ি, মিরসরাই, রাঙ্গুনিয়া, হাটহাজারী, সীতাকুন্ড, বোয়ালখালী ও আনোয়ারাসহ বিভিন্ন উপজেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবারও বাড়ছে। বিগত দুই সপ্তাহে ফটিকছড়িতে সংক্রমণের হার ৩৫ দশমিক ৯ শতাংশ। মাস্ক পরিধানসহ শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি না মানলে সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে। এ আশংকায় আপাতত আগামীকাল বুধবার (২৩ জুন) থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ফটিকছড়িতে লকডাউন বলবৎ থাকবে। 

জেলা প্রশাসক জানান, ফটিকছড়িতে লকডাউন চলাকালে সার্বক্ষণিক ওষুধের দোকান, সকাল ৭টা থেকে ১১টা ও বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার ছাড়া হোটেল-রেঁস্তোরা ও কমিউিনিটি সেন্টারসহ সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। পারিবারিক, সামাজিক, ধর্মীয় ও জনসমাগম ঘটে এমন অনুষ্ঠান করা যাবে না। 

যানবাহনে ধারণ ক্ষমতার অধেক যাত্রী পরিবহন বিষয়ে জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান বলেন, যে সকল গণপরিবহন এখানে চলাচল করে, সেগুলো ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে কি না, যাত্রীরা মাস্ক পরা ও স্বাস্থ্যবিধি মানছে কি না তা বিআরটিএ’র ম্যাজিস্ট্রেটরা নিশ্চিত করবেন। 

করোনার সংক্রমণ রোধে প্রত্যেকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সচেতনতামূলক কার্যক্রমে এগিয়ে আসলে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হবে বলে মনে করেন জেলা প্রশাসক। 

চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, করোনা রোগীদের সুচিকিৎসায় আন্দরকিল্লা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল, জেনারেল হাসপাতাল-২ হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ২৫০টি শয্যা প্রস্তুত রয়েছে। নির্দিষ্ট বেসরকারি ক্লিনিক-হাসপাতালে প্রয়োজনীয় আইসিইউ বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। 

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় (২১ জুন থেকে ২২ জুন) চট্টগ্রামে ৯৯০ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষায় নগরী ও জেলায় ২২৬ জন শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৮২ শতাংশ। মহানগরে মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। 

গত ১৪ দিনে চট্টগ্রামে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয় ৬ হাজার ৫৭৩ জনের। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ১০৬ জনের। 

চট্ট্রগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে জরুরি সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি, উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার) মো. বদিউল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস এম জাকারিয়া, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোছা, সুমনী আক্তার প্রমুখ।
 

রেজাউল/বকুল  

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়