Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৬ ১৪২৮ ||  ১২ সফর ১৪৪৩

টঙ্গীতে পোশাক কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, কারখানা বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১২, ৫ আগস্ট ২০২১   আপডেট: ১৯:৩১, ৫ আগস্ট ২০২১
টঙ্গীতে পোশাক কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, কারখানা বন্ধ

গাজীপুরের টঙ্গীতে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে ক্রসলাইন নিট ফেব্রিক্স লিমিটেড কারখানায় শ্রমিক বিক্ষোভের ঘটনা ঘটেছে। এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাঁধে। 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৫৮ রাউন্ড শর্ট গান, ২১ রাউন্ড কাঁদানে গ্যাস ও তিন রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছোড়ে। এ ঘটনায় পুলিশের কয়েকজন সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকাল ৯টায় টঙ্গীর ভাদাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। 

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন— এএসআই এমদাদুল হক, কনস্টেবল মেহেদী, সাব্বির, আশরাফুল, মারুফ তমাল। আহত আনসার সদস্যরা হলেন— মোয়াজ্জেম হোসেন, রেজাউল করিম, মোহাম্মদ আলী মোল্লা। আহত শ্রমিকদের পরিচয় জানা যায়নি।

শিল্প পুলিশ ও শ্রমিকরা জানায়, কারখানার ১৬ জন শ্রমিককে ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে গত মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) থেকে কয়েকশ’ শ্রমিক বিক্ষোভ ও কর্মবিরতি পালন করে আসছিলো। বিষয়টি সমাধানের জন্য কারখানা কর্তৃপক্ষ বুধবার (৪ আগস্ট) সময় নির্ধারণ করে দেয়। কিন্তু বুধবার সকালে শ্রমিকরা কাজে যোগ দিলে বিষয়টি সমাধান না করায় দুপুরের পর শ্রমিকরা ফের বিক্ষোভ শুরু করে। পরে সন্ধ্যায় মালিক পক্ষ বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সমাধান করবে বলে জানালে শ্রমিকরা বাড়ি ফিরে যায়। 

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকালে শ্রমিকরা কাজে যোগ দিতে এসে কারখানা বন্ধের নোটিস দেখে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এসময় শ্রমিকরা কারখানার ২ নম্বর গেইটের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে শিল্প পুলিশ শ্রমিকদের নিবৃত করার চেষ্টা করলে পেছন থেকে শ্রমিকরা ইট-পাটকেল মারতে শুরু করে। এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে ৫৮ রাউন্ড শর্ট গান, ২১ রাউন্ড কাঁদানে গ্যাস ও তিন রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছোড়ে পুলিশ।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার এস আলম জানান, ক্রসলাইন লিমিটেড পোশাক কারখানার সংঘর্ষের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। দুটি কারখানায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শিল্প পুলিশের পরিদর্শক (টঙ্গী জোন) আব্দুল জলিল বলেন, শ্রম আইন ১৩ (১) অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ কারখানা বন্ধ ঘোষণা করে নোটিশ টানায়। সকাল থেকে কারখানার নিরাপত্তায় শিল্প পুলিশ মোতায়েন করা হয়। কিন্তু বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা জোরপূর্বক কারখানার গেটে ভাংচুর করে ভেতরে প্রবেশ করতে চায়। এসময় শ্রমিকদের বাধা দিলে পুলিশের ওপর তারা হামলা চালায়। এতে পুলিশের আট সদস্য আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারখানার সামনে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ক্রসলাইন নিট ফেব্রিক্স লিমিটেড কারখানা কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব‌্য পাওয়া যায়নি।

রেজাউল করিম/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়