Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১২ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

Risingbd Online Bangla News Portal

কুমিল্লা-৭ আসনে প্রাণ গোপালকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

কুমিল্লা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৪৪, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১  
কুমিল্লা-৭ আসনে প্রাণ গোপালকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

প্রাণ গোপাল দত্ত

কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। 

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার ওই বিজ্ঞপ্তি জারি করেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার বলেন, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে এ নির্বাচনে তিনজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছিল।  রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল। তবে এর আগেই জাতীয় পার্টি ও ন্যাপের প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।  যে কারণে এ নির্বাচনে একমাত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের প্রাণ গোপাল দত্তই ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, জাতীয় পার্টি ও ন্যাপের প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় একক প্রার্থী হিসেবে প্রাণ গোপাল দত্তের নাম চূড়ান্ত করা হয়। যেহেতু একজন প্রার্থী, তাই আর মার্কা দেওয়ার কোনো বিধান নেই। এ অবস্থায় প্রাণ গোপাল দত্তকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এরপর গেজেট প্রকাশ করার জন্য নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে পাঠানো হবে।

গত ৩০ জুলাই কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসনে আওয়ামী লীগের সাংসদ মো. আলী আশরাফ মারা যান।  তখন আসনটি শূন্য হয়।   নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৭ অক্টোবর এই আসনের উপ-নির্বাচনে ভোট হওয়ার কথা ছিল। তবে একক প্রার্থী হিসেবে প্রাণ গোপাল দত্তকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করায় ভোটের আর প্রয়োজন হচ্ছে না।

প্রাণ গোপাল দত্ত ১৯৫৩ সালের ১ অক্টোবর চান্দিনা উপজেলার মহিচাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৮ সালে তিনি চান্দিনা পাইলট উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৭০ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জন করেন। 

প্রাণ গোপাল দত্ত চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও প্রচার সম্পাদক ছিলেন। এরপর তিনি বিদেশ থেকে চিকিত্সাশাস্ত্রে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন। 

তিনি ২০০৯ সাল থেকে টানা দুই মেয়াদে (৮ বছর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। ২০১২ সালে তিনি স্বাধীনতা পদক পান। 

আবদুর/এসবি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়