Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ২ ১৪২৮ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে সংবর্ধনা নিলেন গোলাম মাহফুজ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:০৬, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৯:৩১, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে সংবর্ধনা নিলেন গোলাম মাহফুজ

করোনা প্রকোপের মধ্যেই দীর্ঘ ১৭ মাস বন্ধ রাখার পর স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিত করার শর্তে সরকার খুঁলে দিয়েছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এরই মধ্যে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। ঠিক তেমনই এক সময় জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদ পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে সংবর্ধণা নিয়েছেন গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকে সংবর্ধণা দেয় সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয় এবং আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজ।

গোলাম মাহফুজ চৌধুরী জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।  

সরেজমিনে আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজে গিয়ে দেখা গেছে, দুপুর ১২ টার আগে থেকে কলেজের মেইন গেট থেকে ভেতরে প্রশাসনিক ভবন পর্যন্ত দুই পাশে রোদের মধ্যে শিক্ষার্থীরা হাতে ফুলের ডালা নিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর সেখানে এসে পৌঁছালে কলেজের অধ্যক্ষসহ অন্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা তাকে ফুলের তোরা এবং ফুল ছিটিয়ে শুভেচ্ছা জানান।  

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পরে আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজের হলরুমে সংবর্ধণার ব্যানার টাঙ্গিয়ে শিক্ষার্থীদের সামনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ওই কলেজের অধ্যক্ষ আতিকুর রহমান।  

আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ আবিদা সুলতানা কুইন বলেন, ‘গোলাম মাহফুজ চৌধুরীকে কলেজের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। ’ আওয়ামী লীগ নেতা এই কলেজের কোনো পদে নেই কি কারণে তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ আর কোনো মন্তব্য করেননি।

একইদিন সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে সংবর্ধনা ব্যানার টাঙ্গিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  সেখানেও সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান বলেন, গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর এই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি। তাই আমরা বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দিয়েছি।

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম বলেন, এই ধরনের কোন অনুষ্ঠান করার কোন সুযোগ নেই। আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।  যদি কোন প্রতিষ্ঠান করে, এবং কোন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে যদি কোন অভিযোগ আসে নিশ্চয় আমরা তদন্ত করে যাথাযত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। ’

শামীম/মাসুদ

সর্বশেষ