Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

শেষ সময়ে ইলিশের চাহিদা বেশি, দামও বেশি

নোয়াখালী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০৭, ৩ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ২২:১১, ৩ অক্টোবর ২০২১
শেষ সময়ে ইলিশের চাহিদা বেশি, দামও বেশি

নিষেধাজ্ঞা শুরুর আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। প্রজনন মৌসুমের কারণে টানা ২২ দিন সাগর এবং নদীতে ইলিশ শিকার বন্ধ থাকবে। তাই শেষ মুহূর্তে ইলিশ কিনতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সাধারণ ক্রেতারাও। নিষেধাজ্ঞার সময়ে চাহিদা পূরণে ইলিশ কিনে তা ফ্রিজিং করে রাখা হচ্ছে।

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সমুদ্র উপকূলবর্তী ঘাটগুলোতে থেকে গাড়ি ভর্তি ইলিশ নিয়ে ফিরছেন ব্যবসায়ীরা। 

নিষেধাজ্ঞার আগ মুহূর্তে বাজারে আসছে প্রচুর রুপালি ইলিশ।  এখানকার নদ-নদী ও সাগর মোহনায় আশানুরূপ ইলিশ পাওয়ায় জেলা শহরের বাজারগুলোতে ইলিশকেনার ধুম পড়েছে। তবে দাম বেশি হওয়ায় সাধারণ ক্রেতাদের ইলিশ কিনতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।  

মৎস্য বিভাগ সূত্র জানা গেছে, রোববার (৩ অক্টোবর) মধ্যরাত থেকে শুরু হচ্ছে ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা। সরকার নির্ধারিত এই সময়ের মধ্যে শুধু ইলিশ ধরা নয় পরিবহন, মজুত, বাজারজাতকরণে নিষেধাজ্ঞা থাকছে। বিশেষ করে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ইলিশের চাহিদা মেটাতে সাধারণ ক্রেতারা যে যার মতো করে ইলিশ কিনে নিচ্ছেন।  

জেলা শহরের পৌর বাজারের মাছ ব্যবসায়ী ফজলুর রহমান বলেন, এখন বাজারে বড় বড় সাইজের ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে।  যার সবই নদীর ইলিশ।  দামও একটু বেশি।  কাল থেকে বাজারে ইলিশ পাওয়া যাবে না। তাই ক্রেতাদের আনাগোনাও বেড়ে গেছে।  

নোয়াখালী পৌর বাজারের কয়েকজন পাইকারী ব্যবসায়ী বলেন, দুই মাস আগে মৌসুম শুরু হলেও শেষ দিকে এসে নদীর ইলিশ ধরা পড়েছে বেশি।  দু সপ্তাহ ধরে প্রচুর ইলিশ আসছে বাজারে। দামও বেশি। ঢাকা ও চট্রগ্রাম থেকে ব্যবসায়ীরা এসে হাতিয়ার ঘাট থেকে ইলিশ কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীদের শহর থেকে হাতিয়ার ঘাটে গিয়ে মাছ কিনতে হয়। তাই সবকিছু মিলিয়ে দামও বেশি পড়ে।  

নোয়াখালী পৌর বাজারে ইলিশ কিনতে এসেছেন তাহমিনা নামে একজন গৃহিনী।  তিনি বলেন, অন্য বছরের তুলনায় এ বছর ইলিশের দাম অনেক বেশি।  তারপরও সামর্থ্য অনুযায়ী কিনেছি। 

ইমতিয়াজ আহমেদ নামে অপর এক মাছ ক্রেতা বলেন, ইলিশে বাজার ভরপুর। গত সপ্তাহেও বাজারে এতো মাছ ছিলোনা। তারপরও দাম কমেনি। ৭০০-৮০০ গ্রাম ওজনের ইশিলের দাম মাছ বিক্রেতারা আটশ-নয়শ টাকা চাচ্ছেন। কেজির ওপরেরগুলো চাচ্ছেন এগারোশ টাকার ওপরে। যাদের  সামর্থ্য আছে তারাই ইলিশ কিনছেন।

নোয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ডা. মোতালেব হোসেন বলেন, দুর্গাপূজা উপলক্ষে বর্তমানে বাজারে ইলিশের চাহিদা বেশি।  তাছাড়া মধ্যরাত থেকে ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার।  এতে করে শেষ সময়ে মাছের চাহিদা বেড়ে গেছে।

সুজন/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়