Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২৫ ১৪২৮ ||  ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ঝুঁকিপূর্ণ নলকা সেতু এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিল সওজ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০৯, ১৩ অক্টোবর ২০২১  
ঝুঁকিপূর্ণ নলকা সেতু এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিল সওজ

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের ঝুঁকিপুর্ণ নলকা সেতুর কার্পেটিং উঠে যাওয়ায় সেতুর  মেরামতের জরুরী কাজ চলছে। মেরামতের কাজ চলকালীন ৩ দিন পরিবহন চলবে এক লেনে। এ কারণে মহাসড়কে ব্যাপক যানজটের আশঙ্কায় পরিবহনের মালিক ও চালকদের যতটা সম্ভব বিকল্প পথে পরিবহন চালানোর পরামর্শ দিয়েছে সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ)।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৮ সালে সিরাজগঞ্জ-বগুড়া আঞ্চলিক সড়কের ফুলজোড় নদীর ওপর নলকা সেতু নির্মাণ করা হয়। ১৯৯৮ সালে আঞ্চলিক এ সড়কটি মহাসড়কে পরিণত হলেও এ সেতুটির কোনো পরিবর্তন করা হয়নি। ১৯৯৮ সালে বঙ্গবন্ধু সেতু উদ্বোধনের পর থেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার যানবাহন চলাচল করছে এ সেতুটি দিয়েই। ফলে সেতুটি একেবারেই জরাজীর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক সালেকুজ্জামান সালেক জানান,  নলকা সেতুকে ঘিরে গত দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেতুর পশ্চিম পাশে বিশাল আকৃতির অনেকগুলো গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক বিভাগকে বিষয়টি জানানোর পর তারা সেতু ও মহাসড়কের বেশ কিছু স্থানে গর্ত সংস্কারের কাজ শুরু করেছে।

হাইওয়ে পুলিশের (বগুড়া অঞ্চল) পুলিশ সুপার মুনশী শাহাবুদ্দিন বলেন, সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় একটি লেনে গাড়ি ছাড়তে হয়। আর সেতুর পাশে রাস্তা খারাপের কারণে গাড়িগুলো ধীরগতিতে চলে। এতে মাঝে মধ্যেই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। তার ওপর ওই সব গর্তের কারণে একটি গাড়ি হেলে পড়লে দুর্ভোগ আরো বেড়ে যায়। এ অবস্থার কারণে পুলিশ ২৪ ঘণ্টাই মহাসড়কে কাজ করছে। 

সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দিদারুল আলম বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ সেতুর উপরে কার্পেনিং এর কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। ২ দিনের মধ্যেই শেষ হবে। তবে সেতুর পশ্চিশ পাশে বেশ কিছু গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এগুলো তুলে কার্পেটিং এর কাজ দ্রুত শেষ হলেই যানজটও কমে যাবে।তিনি আরও বলেন, সেতু ও মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে গর্ত হওয়ায় ঢাকা থেকে উত্তরাঞ্চলের এক লেনে পরিবহন চলছে। সে কারণে উত্তরাঞ্চলের পরিবহন ঢাকায় যাওয়ার জন্য বিকল্প পথে চলাচলের জন্য মালিক ও চালকদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

অদিত্য/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়