Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৮ ||  ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

টানা বর্ষণে ফসলের ক্ষতির আশঙ্কা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫৬, ২০ অক্টোবর ২০২১  
টানা বর্ষণে ফসলের ক্ষতির আশঙ্কা

গত তিন দিনের টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পঞ্চগড়ের জনজীবন। এই বৃষ্টিপাতে দুর্ভোগে পড়েছেন খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষেরা। একই সঙ্গে ভারী বর্ষণে নিচু এলাকার ফসলি জমি ডুবে গেছে। এমতাবস্থায় সবজি ও আমনের ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 

বুধবার (২০ অক্টোবর) ভোর ৬টায় পঞ্চগড়ে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ১৭৩ মিলিমিটার। পরে ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত আরো ৪১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এই বৃষ্টিপাত আরও দু’একদিন থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। 

টানা বৃষ্টির কারণে জেলার নিচু এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। সড়কে জনচলাচল কমে গেছে। রিকশা ও ভ্যান চালকদের যাত্রী সংকটে আয় কমে গেছে। সড়কে যানবাহনও ছিলো স্বল্প সংখ্যক। অনেকেই বৃষ্টিতে ভিজেই প্রয়োজনীয় কাজ সেরেছেন। হাঁট-বাজারগুলোতে লোক সমাগম অনেকটাই কম ছিলো। ি

কথা হয় পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের কামারপাড়া এলাকার আমন চাষি নাজিরুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি এক একর জমিতে আমন ধান করেছেন। এর মধ্যে অর্ধেক জমির ধানই ঝড়-বৃষ্টিতে নুইয়ে পড়েছে। অতি বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় ডুবে গেছে নুইয়ে পড়া ধান। এতে ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন নাজিরুল।

একই কথা জানান হাড়িভাসা ইউনিয়নের জোতবাহাদিপাড়া এলাকার কৃষক রবিউল ইসলাম। তিনি বলেন, বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসে প্রায় তিন বিঘা জমির ধান নুইয়ে পড়েছে। এতে ধানের ফলন ব্যাপকভাবে কমবে। ধানের দানা কমে চিটার পরিমাণ বেশি হতে পারে। 

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর পঞ্চগড়ে এক লাখ ১০ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ৫৮ হেক্টর জমির ধান নুইয়ে পড়েছে। তবে খুব বেশি ক্ষতির আশঙ্কা নেই বলছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আনোয়ার সাদেক।

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ জানান, বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপের কারণে পঞ্চগড়সহ দেশজুড়ে হালকা থেকে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। তবে এখন থেকে টানা বৃষ্টি কমতে থাকবে বলে জানান তিনি।

নাইম/এনএইচ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়