Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

পোস্টার-ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে ঘোড়াঘাট পৌরসভা

দিনাজপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০০, ২৭ অক্টোবর ২০২১  
পোস্টার-ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে ঘোড়াঘাট পৌরসভা

আগামী ২ নভেম্বর তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট পৌরসভা নির্বাচন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পোস্টার-ব্যানারে ছেয়ে গেছে পুরো পৌরসভা। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা শেষ সময়ে নিজেদের জাহির করতে নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।   

ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ঘোড়াঘাট পৌরসভায় মেয়র প্রার্থী ৫ জন। এদের মধ্যে নৌকা প্রতীক নিয়ে ইউনুছ আলী, স্বতন্ত্র নারিকেল প্রতীক নিয়ে আব্দুল সাত্তার মিলন, জগ প্রতীক নিয়ে আবুল কালাম আযাদ, মোবাইল প্রতীক নিয়ে আব্দুল মান্নান ও রেললাইন প্রতীক নিয়ে রিপন আহম্মেদ রানা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া কাউন্সিলর ৩৭ জন এবং সংরক্ষীত মহিলা কাউন্সিলররা পদে লড়াই করবেন ১০ জন প্রার্থী। 

নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন মার্কা নিয়ে নিজ নিজ এলাকায় প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। 

পৌর এলাকার প্রতিটি অলি গলি পোস্টার আর ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে। এলাকার বিভিন্ন মোড়, রাস্তায় আর হোটেলসহ বিভিন্ন বাড়ি অফিস এবং দেওয়ালে ছেঁয়ে গেছে পোস্টারে। প্রতিটি ওয়ার্ডে মেয়র প্রার্থীসহ কাউন্সিলর প্রার্থীরা নির্বাচনীয় অফিস বসিয়েছেন। পাশাপাশি প্রার্থীরা ভোটারদের নিজেদের প্রতি আগ্রহী করে তুলতে অংশ নিচ্ছেন উঠান বৈঠক, পথসভা, মিটিং, মিছিলে।

ভোটাররা জানান, এলাকার মানুষের পাশে থাকবেন এবং উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারেন এমন প্রর্থীকে দেখে বুঝে ভোট দেবেন তারা।

ঘোড়াঘাট পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার নাজমুল হোসেন রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘২৪ ঘণ্টা প্রার্থীরা আসছেন ভোট চাইতে। সাবাইকে বলছি ভোট দিবো, কিন্তু যাকে তাকে ভোট দিয়ে ভোট নষ্ট করবো না। যোগ্য ব্যক্তিকে ভোট দেবো।’

২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা রাবেয়া বেগম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ভোট আসলে সবাইকে দেখা যায়। ভোট শেষ হলে আর কারো ছায়াও দেখা যায় না। যাকে ভালো মনে হবে তাকেই ভোট দেবো।’

৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সাহেব মিয়া রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘গত নির্বাচনে ওয়ার্ডবাসী আমাকে ভালবেসে ভোট দিয়ে কাউন্সিলর বানিয়েছেন। আমি আমার সাধ্য অনুযায়ী ওয়ার্ডবাসীর চাহিদা পূরন করেছি। এবারও নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি। আশা করছি এবারও তারা আমাকে ভোট দেবেন।’ 

ঘোড়াঘাট পৌরসভায় নারিকেল মার্কা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ও বর্তমান মেয়র আব্দুল সাত্তার মিলন বলেন, ‘ঘোড়াঘাট পৌরসভা হওয়ার পর থেকে দুইবার আমি মেয়র পদে জয়লাভ করেছি। এবার জয় পেলে তৃতীয়বারের মতো মেয়র হতে পারবো। পৌরবাসী আমার পক্ষে আছে। আবারও মেয়র হলে আমি পৌরসভায় যে সমস্ত উন্নয়ন কাজ বাঁকি আছে সেগুলি করার চেষ্টা করবো।’ 

ঘোড়াঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মমিনুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আগামী ২ নভেম্বর ঘোড়াঘাট পৌরসভার নির্বাচন ইভিএম এর মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। সুষ্ঠু অবাদ-নিরোপক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন আয়োজনের জন্য সর ব্যবস্থা আমরা গ্রহন করবো। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, বিজিবি ও আনসার ভোটকেন্দ্রে থাকবে।’

মোসলেম/মাসুদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়