ঢাকা     শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯ ||  ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

অসময়ে পদ্মার ভাঙনে পাবনায় শহর রক্ষা বাঁধ হুমকিতে

পাবনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৭, ২৪ নভেম্বর ২০২১  
অসময়ে পদ্মার ভাঙনে পাবনায় শহর রক্ষা বাঁধ হুমকিতে

গতিপথ পরিকর্তন হওয়ায় পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সাঁড়া ইউনিয়নে অসময়ে পদ্মা নদীতে ভাঙন দেখা দিয়েছে। গত তিন দিন ধরে চলা ভাঙনের কারণে নদী পারের মানুষ আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন।

পদ্মায় ভাঙন শুরু হওয়ায় ২০১৭ সালে ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত শহর রক্ষা বাঁধটিও হুমকির মধ্যে রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। 

সরেজমিনে সাঁড়া ইউনিয়নের ভাঙন কবলিত এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নদীর গতিপথ পরিবর্তন হওয়ায় বাঁধের সামনের চর এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে। আতঙ্কিত এলাকাবাসী জানান, গত ৩ দিন ধরে সাঁড়ার ব্লকপাড়া, থানা পাড়া ও ইসলামপাড়া এলাকার কিছু অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। লম্বায় ২০০ মিটার ও প্রস্থে ৫০ মিটার চর জুড়ে ভাঙনে প্রায় ৩০ একর জমি নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। 

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ২০১৭ সালে শহর রক্ষা বাঁধ নির্মাণের সময় নদীর তীর সংরক্ষণ কাজ বা প্রটেক্টিভ ওয়ার্ক ত্রুটিপূর্ণ হওয়ায় এই ভাঙন দেখা দিয়েছে। তীর এলাকায় নদীর গভীরে ব্লক ও বালুর বস্তা নিয়মানুযায়ী ডাম্পিং করা হয়নি। এছাড়া অপরিকল্পিতভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলনের জন্য এই পরিস্থিতির সৃষ্টি বলে দাবি করেন এলাকাবাসী।  

পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল আলম চৌধুরী বলেন, ‘ভাঙনে বাঁধের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। নিয়মানুযায়ী ডাম্পিং করা হয়েছে। নদীর অপর প্রান্তের কিছুটা আগে জেগে উঠা চরে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়েছে। এখন নদীর স্রোত সরাসরি প্রবাহিত না হয়ে এই এলাকায় এসে আছড়ে পড়ায় ভাঙন শুরু হয়েছে।’ 

তিনি আরো বলেন, ‘ভাঙন প্রতিরোধে নদীর গতিপথ পরিবর্তন করতে হবে। গতিপথ পরিবর্তনের জন্য দ্রুত ওই চর এলাকা জুড়ে ড্রেজিং করে স্রোতের গতিপথ পরিবর্তন করতে হবে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।’

পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নূরুজ্জামান বিশ্বাস পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) বিকেলে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। 

নূরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, ‘বাঁধ নির্মাণের আগে এই এলাকার শত শত বিঘা জমি, বাড়ি-ঘর, নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। এলাকার মানুষ আর যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, এজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। অল্প থেকেই বেশি ক্ষতি  হয়ে থাকে। তাই বিষয়টি পানি উন্নয়নবোর্ডকে উদ্যোগ নিতে হবে।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে ঈশ্বরদী উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধো নায়েব আলী বিশ্বাস, পৌর মেয়র ইসাহক আলী মালিথা, প্রকৌশলী মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ, নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল আলম চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পি এম ইমরুল কায়েস, সাঁড়া ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক রানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শাহীন/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়