ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১২ ১৪২৮ ||  ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সুনামগঞ্জে একজনের যাবজ্জীবন, ৮ জনের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:২৩, ২ ডিসেম্বর ২০২১  
সুনামগঞ্জে একজনের যাবজ্জীবন, ৮ জনের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

২২ বছর পর সুনামগঞ্জের ছাতকে তেরা মিয়া (৬২) হত্যা মামলায় ফারুক মিয়া ওরফে মধু মিয়া নামের একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। 

এ হত্যা মামলায় আরও ৩১ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মহিউদ্দিন মুরাদ এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় ২৭ আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম মোস্তফা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৯ সালের ২২ নভেম্বর সকালে জেলার ছাতক উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নে বলারপীরপুর গ্রামের তেতইখালী খালে সেতু নির্মাণের বিরোধকে কেন্দ্র করে আব্দুল হাই আজাদ মছকু মিয়া ও আরজু মিয়ার লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় বন্দুকের গুলিতে আরজু মিয়ার বড়ভাই তেরা মিয়া (৬২) মারা যান ও উভয় পক্ষের ৩০ জন আহত হন। এ ঘটনায় নিহতের ভাতিজা সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই বছরের ২৪ নভেম্বর ছাতক থানায় ৪৮ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা চলাকালীন সময়ে ৮ জন আসামি মারা যায় এবং এখনো ১৩ জন আসামি পলাতক রয়েছেন। ছাতক থানার তৎকালীন ওসি ২০০৪ সালের ২১ এপ্রিল আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এই মামলায় ২২ জনের স্বাক্ষী নেওয়া হয়।

দণ্ডপ্রাপ্ত ৯ জনের মধ্যে আসামি ফারুক আহমদ ওরফে মধু মিয়াকে পেনাল ৩০২ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়। তাছাড়া এই একই আসামিকে ৩০৭ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ২ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। বাকি ৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম মোস্তফা জানান, রায়ে সন্তুষ্ট বাদীপক্ষ।

আল আমিন/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়