ঢাকা     শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯ ||  ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

সারের দাম বৃদ্ধি, হতাশ রংপুরের আলু চাষিরা

রংপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৫৪, ৮ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:০১, ৮ ডিসেম্বর ২০২১
সারের দাম বৃদ্ধি, হতাশ রংপুরের আলু চাষিরা

আলুর বীজ রোপণে মাঠে ব্যস্ত কৃষক

আলু উৎপাদনে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম জেলা রংপুর। নভেম্বরের শেষ আর ডিসেম্বরের শুরুর এই আলু রোপনে ব্যস্ত সময় পার করেন এই অঞ্চলের কৃষকরা। গতবারের লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়ে এবারও আলু চাষ শুরু করেছেন চাষিরা। কিন্তু আলুর অন্যতম 'টিএসপি' সার বস্তা প্রতি ৩০০ টাকা দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হতাশ চাষিরা। 

কৃষকদের দাবি সারের দাম কমিয়ে উৎপাদিত আলুর দাম বৃদ্ধির। নেতারা বলছেন কৃষি উৎপাদনকে অব্যাহত রাখতে সার ও ডিজেলে সরকারিভাবে ভর্তুকি দেওয়া প্রয়োজন। তবে কৃষি বিভাগ জানায়, প্রতিকূলের মধ্যেও এরই মধ্যে রংপুরের প্রায় ২৭ ভাগ জমিতে আলু রোপণ করেছেন কৃষকরা। 

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রংপুরের পীরগাছা উপজেলার সড়েয়ারতল, মহিন্দ্রা ও দেউতি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে হতাশা নিয়েও আলু রোপণ করছেন কৃষকরা। সকালের কুয়াশা ও তীব্র ঠান্ডাকে উপেক্ষা করে জমি প্রস্তুত করে পুরুষ মহিলারা একত্রে আলুর বীজ বপন করছেন। 

কথা হয় মহিন্দ্রা এলাকার কৃষক সাজু মিয়ার সঙ্গে। ২০-৩০ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে এবারেও ৩ একর জমিতে আলুর বীজ রোপণ করছেন তিনি। 

সাজু মিয়িা বলেন, ’গতবছর আলু আবাদ করে দুই লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এবার আলুর বীজের দাম কম থাকায় তিন একর জমিতে আলু চাষের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কিন্তু আলু রোপণের শুরুতেই শুনতেছি টিএসপি সারের সঙ্কট। বাজারে এখন ৮০০ টাকার টিএসপি সার এখন ১ হাজার ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আমাদের মতো কৃষককে বাঁচাতে সরকারের উচিৎ আলু চাষের সময়টাতে সার ও কিটনাশকের দাম যেন কৃষকের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে সে দিকটায় নজর দেওয়া।’

মোক্তার মিয়া নামে অপর এক কৃষক বলেন, ’আলু চাষের জন্য জমি প্রস্তুত করতে আমাদের এই দিকে ২৪ শতকের এক দোনে খরচ হয় ১ হাজার ৫০০ টাকা। পাশাপাশি এই জমি লীজ নিয়ে আলু চাষ করতে শেষ পর্যন্ত খরচ হয় ২৫-৩০ হাজার টাকা। আলুর দাম যদি কেজিতে ১৫ টাকার উপরে না থাকে তবে প্রত্যেক চাষি লোকসানের মুখে পড়বে। তাই সরকারিভাবে আলুর দাম নির্ধারণ করা দরকার। তাহলেই কৃষকরা বাঁচবে।’

রংপুর জেলা কৃষক সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক অ্যাডভোকেট পশাল কান্তি নাগ চলতি মৌসুমে সরকারি উদ্যোগে আলু চাষীদের সুলভ মূল্যে সার, ডিজেল, কীটনাশক সরবরাহ এবং সহজ শর্তে বিনা সুদে কৃষি ঋণ প্রদানে দাবি জানিয়েছেন।’

রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন বলেন, রংপুরে এবার ৫৩ হাজার ৫২৫ হেক্টর জমিতে ১৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৯৫ মেট্রিক টন আলু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। রংপুর জেলার প্রায় ২৭ ভাগ জমিতে আলু রোপ করা হয়েছে। বাকি জমিগুলোতে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে আলু রোপণ সম্পন্ন হবে বলেও জানান তিনি।’

আমিরুল/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়