ঢাকা     বুধবার   ১৮ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৯ ||  ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সাত জেলায় প্রতারকের সাত বিয়ে

কুমিল্লা সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২৪, ২৬ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ২১:২৯, ২৬ জানুয়ারি ২০২২
সাত জেলায় প্রতারকের সাত বিয়ে

প্রতারণার মাধ্যম হিসেবে শাকিল আজাদ (২৯) বেছে নিয়েছেন বিয়ের মতো মধুর সম্পর্ককে। প্রতিবার বিয়ের আগে তিনি নিজেকে কাতার প্রবাসী পরিচয় দিতেন। এরপর কাতারে নেয়ার কথা বলে হাতিয়ে নিতেন নগদ অর্থ। এভাবে সাত জেলায় সাতটি বিয়ে করলেও ভুক্তভোগীর অভিযোগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন শাকিল।

কুমিল্লা সদর পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড থেকে শাকিলকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। শাকিলের বাড়ি কুমিল্লার বরুড়া উপজেলায়।

বুধবার কুমিল্লা র‌্যাব ১১-এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মেজর সাকিব জানান, শাকিল প্রতারণার মাধ্যমে কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, নীলফামারী ও ফরিদপুরে বিয়ে করেন। কৌশল হিসেবে তিনি বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে প্রথমে নিম্ন আয়ের পরিবার খুঁজে বের করতেন। তারপর সেই পরিবারের মেয়েকে বিয়ে করে শ্বশুরবাড়িতেই থেকে যেতেন। এলাকার মসজিদ মাদ্রাসায় দান করে সমাজের দৃষ্টি আকর্ষণেরও চেষ্টা করতেন তিনি। এ সময় তিনি নিজেকে কাতার প্রবাসী পরিচয় দিতেন। শ্বশুরবাড়ির এলাকার বেকার যুবকদের কাতার নেয়ার কথা বলে টাকা সংগ্রহ করাই ছিল তার মূল উদ্দেশ্য। টাকা নেয়ার পর শাকিল উধাও হয়ে যেতেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় শাকিল চতুর্থ বিয়ে করেন ২০১৮ সালে খুলনায়। সেখানেও একই কাজ করলে শ্বশুরবাড়ির লোকেরা এলাকার প্রতারিতদের রোষানলে পড়েন। ফলে পরিবারটি এলাকা ছাড়তে বাধ্য হয়। এক পর্যায়ে শাকিলের চতুর্থ স্ত্রী কুমিল্লা র‌্যাব অফিসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের জালে ধরা পড়েন শাকিল। 

সাকিব আরো জানান, বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ শাকিলের পাসপোর্ট বাতিল করে। এরপর শাকিল ছদ্মবেশে চট্টগ্রামে একটি বেকারি খোলেন। তাকে গ্রেপ্তার করে আইনানুগ ব্যবস্থা শেষে বরুড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। 

শরীফ/তারা

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়