ঢাকা     শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৭ ১৪২৯ ||  ০১ জিলহজ ১৪৪৩

ভুরুঙ্গামারীতে কালবৈশাখী ঝড়ে বসত ঘর ও গাছপালার ক্ষতি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:০৪, ১৮ মে ২০২২  
ভুরুঙ্গামারীতে কালবৈশাখী ঝড়ে বসত ঘর ও গাছপালার ক্ষতি

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ৫ ইউনিয়নের ওপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। এতে দুই শতাধিক ঘর-বাড়ি, গাছ ও বোরো ধান ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তবে হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি। 

বুধবার (১৮ মে) ভোর ৪ টার দিকে ভুরুঙ্গামারী সদর, পাইকেরছড়া, চর ভুরুঙ্গামারী, শিলখুড়িসহ বঙ্গসোনাহাট ইউনিয়নের বেশ কিছু এলাকায় এ ঝড় আঘাত হানে। 

জানা গেছে, ঘণ্টাব্যাপী ঝড়ে অনেক স্থানে গাছ ও বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে যায়। ফলে ওই সব স্থানে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিল। 

উপজেলার পাইকেরছড়া গ্রামের মন্টু মিয়া জানান, ভোরে হঠ্যাৎ পাইকেরছড়া গ্রামে কালবৈশাখী ঝড় ও বজ্রপাত শুরু হয়। ঝড়ে তার গ্রামের অরেক বাড়ি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়াও এলাকার কয়েকটি স্থানে গাছ বৈদ্যুতিক তারের উপর পড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। 

পাইকেরছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য বজলুর রহমান বলেন, ভোর ৪ টার দিকে শুরু হওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে আমার ওয়ার্ডের ২০-২৫টি পরিবারের বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনেক স্থানে গাছপালা উপড়ে পড়েছে। ঝড় ও বৃষ্টিতে অন্তত শতাধিক একর জমির পাকা বোরো ধান হেলে পড়েছে। 

পাইকেরছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক সরকার বলেন, কালবৈশাখী ঝড়ে আমার ইউনিয়নের প্রায় ১০০ পরিবারের বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়াও দেড়শ থেকে দুইশ একর জমির বোরো ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। বিভিন্ন সড়কে গাছ উপড়ে পড়ায় সেগুলো কর্তনের কাজ চলছে। বিদ্যুৎ সংযোগ স্বাভাবিক করতে লাইন মেরামতে কাজ করছে বিদ্যুৎ বিভাগ। 

ভুরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দীপক কুমার দেব শর্মার সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

বাদশাহ/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়