ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২১ ১৪২৯ ||  ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

বরগুনার মার্কেটে আগুন: পরিকল্পিত কি না খতিয়ে দেখার তাগিদ 

বরগুনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:৫১, ২১ মে ২০২২   আপডেট: ১০:০৯, ২১ মে ২০২২
বরগুনার মার্কেটে আগুন: পরিকল্পিত কি না খতিয়ে দেখার তাগিদ 

আগুনে ৬০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করেন

বরগুনা পৌর সুপার মার্কেটে একাধিকবার আগুন লেগে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ব্যবসায়ীরা। পরিকল্পিতভাবে এই মার্কেটে আগুন লাগানো হয় কি না তা খতিয়ে দেখার তাগিদ দিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। 

সর্বশেষ গত ১৭ মে মধ্য রাতে আগুন লেগে দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ৬০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করেন।

এর আগে ২০১৫ সালে একই মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সর্বস্ব হারান শতাধিক ব্যবসায়ীl

কসমেটিক্স ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, ২০১৫ সালে আগুনে আমার দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে গিয়েছিলো। এতে প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়। লোকসান কাটিয়ে ওঠার আগেই আবারও ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মাস্টার সুপার কসমেটিক্স দোকানটি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছেl ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০ লাখ টাকাl কেন বার বার এই মার্কেটে আগুন লাগে তা খতিয়ে দেখা উচিতl

সাইফুল ইসলাম আরও বলেন, এসব অগ্নিকাণ্ড পরিকল্পিত কি না সেই বিষয়ে তদন্ত করা দরকারl আমরা পথে বসেছি। ব্যবসার জন্য ১৫ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছিলাম। পণ্য বিক্রি করে মাস শেষে সেই টাকা দিয়েই লোনের টাকা পরিশোধ করতামl এখন লোনের টাকা পরিশোধ করার কোনো উপায় নেইl

জাফর হোসেন নামে ক্ষতিগ্রস্ত আরেক ব্যবসায়ী বলেন, আগুনের খবর পেয়ে বাড়ি থেকে আসার আগেই আমার দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। এক টাকার পণ্যও রক্ষা করতে পারিনিl আমরা বুঝিনা কেন বারবার এই জায়গায় আগুন লাগেl ২০১৫ সালে যে ক্ষতি হয়েছিলো সেই ক্ষতি এখনও কাটিয়ে উঠতে পারিনিl

গার্মেন্টস ব্যবসায়ী মজিবুর রহমান বলেন, আমরা ভিখারি হয়ে গেছিl  আজ তিন দিন হতে চললো তদন্ত কমিটির দেখাও পাইনিl ২০১৫ সালে হোটেল বে অব বেঙ্গলের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিলো। এবার কোথা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে আমরা কিছুই জানি নাl

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের বরগুনার উপসহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর আহমেদ বলেন, আগুনের কারণ অনুসন্ধানে চেষ্টা চলছে। তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ২০১৫ সালের আগুনের ঘটনা তদন্তে দেখা গিয়েছিলো, হোটেল বে অব বেঙ্গলের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিলো। সেখানে পরিকল্পিত কিছুই ছিল নাl এবারও তদন্ত করা হবে। 

এ বিষয়ে বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান রাইজিংবিডিকে বলেন, ফায়ার সার্ভিস আগুনের কারণ অনুসন্ধানের চেষ্টা চালাচ্ছেl যদি পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগানোর কোনো ঘটনা থাকে তাহলে অবশ্যই তদন্তে সেটি বেরিয়ে আসবেl

ইমরান হোসেন/ইভা 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়