ঢাকা     শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৭ ১৪২৯ ||  ০১ জিলহজ ১৪৪৩

নিবন্ধন নাই: জরিমানা ৩ হাসপাতালের, কার্যক্রম বন্ধ দুটির

গাজীপুর (কালিগঞ্জ) প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩৩, ২৭ মে ২০২২   আপডেট: ১৯:০২, ২৭ মে ২০২২
নিবন্ধন নাই: জরিমানা ৩ হাসপাতালের, কার্যক্রম বন্ধ দুটির

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় নিবন্ধন না থাকা ও মেয়াদোত্তীর্ণ নিবন্ধনে হাসপাতাল পরিচালনা করার দায়ে তিনটি হাসপাতালকে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া এদের মধ‌্যে দুই হাসপাতালের কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার (২৭ মে) দুপুরে উপজেলার মাওনা চৌরাস্তায় তিনটি হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম। এসময় শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য, পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রণয় ভূষণ দাস উপস্থিত ছিলেন। 

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশ মোতাবেক শ্রীপুর উপজেলার হাসপাতালগুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মাওনা পপুলার মেডিক‌্যাল সেন্টার ও আনোয়ারা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের নিবন্ধন না থাকায় পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। এছাড়াও কোয়ালিটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের নিবন্ধন মেয়াদোত্তীর্ণ থাকায় তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য, পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রণয় ভূষণ দাস বলেন, ‘গত বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সারা দেশের সব অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়। এরই প্রেক্ষিত্রে শুক্রবার শ্রীপুর উপজেলার তিনটি মাওনা পপুলার মেডিক‌্যাল সেন্টার, আনোয়ারা ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও কোয়ালিটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালানো হয়। এসময় মাওনা পপুলার মেডিক‌্যাল সেন্টার, আনোয়ারা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কোনো নিবন্ধন সনদ দেখাতে ব্যর্থ হয়। এছাড়া কোয়ালিটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মেয়াদোত্তীর্ণ নিবন্ধনে হাসপাতাল কার্যক্রম পরিচালনা করছিল।’

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘পপুলার মেডিক‌্যাল সেন্টার ও আনোয়ারা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিবন্ধন সনদ দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা ও কোয়ালিটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের নিবন্ধন মেয়াদোত্তীর্ণ থাকায় তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।’

স্বাস্থ্য, পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রণয় ভূষণ দাস আরও বলেন, ‘উপজেলার প্রত্যেকটি হাসপাতালের কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনতে আমরা বরাবরই কাজ করে যাচ্ছি। সেসকল হাসপাতাল সরকারি নির্দেশনা মেনে পরিচালনা করছে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও রোগ নির্ণয়ে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিষয়ে সরকার নির্ধারিত মূল্য নেওয়া হচ্ছে কিনা তারও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।’

রফিক সরকার/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়