ঢাকা     শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৭ ১৪২৯ ||  ০১ জিলহজ ১৪৪৩

গোমস্তাপুরে বাণিজ্যিকভাবে আম কেনা-বেচা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১০, ২৭ মে ২০২২  
গোমস্তাপুরে বাণিজ্যিকভাবে আম কেনা-বেচা শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে উপজেলায় রহনপুরের আম বাজারে বাণিজ্যিকভাবে শুরু হয়েছে আম কেনা-বেচা। চলতি মৌসুমের শুরুতে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে গোপালভোগ ও গুটি জাতের আম। 

শুক্রবার (২৭ মে) সকাল থেকে গোমস্তাপুরের আম বাজারে আম বেচাকেনা শুরু হয়েছে। 

প্রতি মণ গোপালভোগ আম বিক্রি হচ্ছে ১৮০০ থেকে দুই হাজার টাকা। গুটি আম বক্রি হচ্ছে এক থেকে দেড় হাজার টাকা পর্যন্ত। অন্যান্য জাতের আম পরিপক্ক না হওয়ায় বাজার এখনও ওঠেনি। এ কারণে আমের বাজার এখনও জমজমাট হয়ে ওঠেনি।

স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী এমরান বাবু জানান, শুক্রবার সকাল থেকে বাণিজ্যিকভাবে আম বেচা-কেনা শুরু হয়। এর আগের বছরগুলো আম বেচা-কেনার উদ্বোধন করা হলেও এবছর আম পাড়ার সময়সীমা নির্ধারণ করেনি প্রশাসন। ফলে এবার এ বাজরে আম বেচা-কেনার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়নি।

প্রথম অবস্থায় আমের আমদানী কম হলেও আর কয়েকদিনের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে আম বাজারে আসতে শুরু করলে আমের বাজার জমে উঠবে বলে জানান ব্যাবসায়ীরা।

আম চাষী আব্দুল বারি বলেন, ‘চলতি মৌসুমে আমের ছোট গাছগুলোতে ফলন ভালো হয়েছে। এছাড়া প্রাথমিক অবস্থায় আমের বাজারদর ভালো রয়েছে। আমের ফলন অনুপাতে বাজারদর ভালো থাকলে লাভবান হতে পারবেন ব্যবসায়ীরা।’

আড়ৎদার ইমাম হোসেন রিফাত বলেন, ‘গত বছর চরম করোনাকালেও আমের বেচাকেনাতে তেমন কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়নি। এবারেও আশা করা যায় কোনো প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই আম বেচাকেনা চলবে এবং চাষীরা আম বিক্রয় করে আশানুরূপ দাম পাবেন।’

আড়ৎদার সমিতির আহ্বায়ক আশরাফুল বলেন, ‘বাজারে গুটিসহ গোপালভোগ আম নেমেছে। এবার আম যখনই পাকবে, তখনই বাজারজাত করতে পারবে ব্যবসায়ীরা। এ বছর উপজেলায় প্রায় ৭০টির অধিক আড়তে আম কেনা-বেচা চলবে। আমের বাজার মূল্য ভালো থাকার ফলে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন ব্যাবসায়ীরা।’

গোমস্তাপুর উপজেলা কৃষি অফিসার তানভির আহম্মেদ সরকার জানান, উপজেলায় মোট ৪ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে যাতে কেউ বাজারে অপরিপক্ক আম বাজারজাত করতে না পারে।

শিয়াম/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়