ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

‘পাকা ঘরে থাকতে পারবো কোনোদিন স্বপ্নেও ভাবিনি’

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:১০, ২৩ জুন ২০২২   আপডেট: ১০:১৬, ২৩ জুন ২০২২
‘পাকা ঘরে থাকতে পারবো কোনোদিন স্বপ্নেও ভাবিনি’

চারজনের যা আয় তা দিয়ে ভাতই জোটে না আবার পাকা ঘর। কিন্তু আমরা যে পাকা ঘরে থাকতে পারবো কোনোদিন স্বপ্নেও ভাবিনি।

বাংলাদেশ পুলিশের দেওয়া ১ কাঠা জমিসহ ঘর পেয়ে খুশিতে কথাগুলো বলছিলেন, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা বৃদ্ধা ফিরোজা বেগম (৬০)।

ফিরোজা বেগম বলেন- দিনমজুর স্বামী, দুই মেয়ে ও আমি অন্যের বাড়িতে কাজ করে যা পাই তা দিয়ে পরিবারের ১০ সদস্যর পেটে ভাত জোটে। নিজেদের জমি না থাকায় প্রায় ৩০ বছর ধরে রাস্তার পাশে সরকারি জায়গায় হোগলা, বাঁশ, খড় ও পলিথিন দিয়ে কুড়েঘর তৈরি করে বসবাস করছিলাম। 

মঙ্গলবার (২২ জুন) বিকালে টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ডুমুরিয়া ইউনিয়নের লেবুতলা গ্রামে বৃদ্ধা ফিরোজা বেগমকে ঘর উপহার দেওয়া হয়। এসময় টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল শেখ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম কুমার বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জোনাকি, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) তন্ময় মন্ডল, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিএম মাহমুদুল হক, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মইনুল ইসলাম অপু, কাউন্সিলর আলমগীর হোসেন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

ফিরোজা বেগম বলেন, জমিসহ পাকা ঘর পাওয়ায় আমরা খুবই খুশি। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

টুঙ্গিপাড়া থানা সূত্রে জানা গেছে, মুজিব শতবর্ষে বাংলাদেশের একজন লোকও গৃহহীন থাকবে না, এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে পুলিশের পক্ষ থেকে টুঙ্গিপাড়া থানায় গৃহহীন ও হতদরিদ্র একটি পরিবারকে গৃহ নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ, বাইরে টিউবওয়েল ও বাথরুমসহ বসবাসের উপযোগী সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে।

৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলমগীর হোসেন বলেন, বহুবছর ধরে দেখে আসছি তারা রাস্তার পাশে সরকারি জায়গায় একটি কুড়ে ঘরে স্বামী সন্তানদের নিয়ে বসবাস করে আসছে। তাদের কোন জায়গা জমি নেই। তাই মাথার উপর পাকা ছাদ পেয়ে তারা অত্যন্ত খুশি।

টুঙ্গিপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) তন্ময় মন্ডল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় পুলিশ মহাপরিদর্শকের উদ্যোগে টুঙ্গিপাড়ায় ১ কাঠা জায়গাসহ ফিরোজা বেগম কে ঘর প্রদান করা হয়েছে। এই ঘরে বিদ্যুৎ, স্যানিটেশন ব্যবস্থা এবং টিউবওয়েল স্থাপন করে দেওয়া হয়েছে। 

বাদল/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়