ঢাকা     সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২০ ১৪২৯ ||  ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

‘আপত্তিকর ভিডিও’র নারীকে দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি, মামলার পর দুজন গ্রেপ্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:৫০, ২৩ জুন ২০২২   আপডেট: ০৭:৩০, ২৪ জুন ২০২২
‘আপত্তিকর ভিডিও’র নারীকে দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি, মামলার পর দুজন গ্রেপ্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুরের ‘আপত্তিকর ভিডিও’ ভাইরাল করার মামলায় দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চেয়ারম্যানপুত্র মামলার এজাহারে লিখেছেন, ভাইরাল হওয়া ভিডিও’র নারী তার বাবার দ্বিতীয় স্ত্রী। 

বুধবার (২২ জুন) মধ্যরাতে উপজেলার কুট্টাপাড়া থেকে এ মামলায় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক শেখ আফরান আহমেদ আরিফ (১৯) ও কুট্টাপাড়ার তরিকুল ইসলাম আপেল (২৯)। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। 

মামলার এজহারে রফিক উদ্দিন ঠাকুরের ছেলে সাইফুল ইসলাম রাব্বি জানান, তার বাবা ২০১৭ সালে পরিবারের সম্মতিতে দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। সম্প্রতি তার বাবার সাথে সৎ মায়ের একান্ত ব্যক্তিগত অবস্থায় গোপনে ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে। 

সরাইল উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর
 

বিষয়টি নিশ্চিত করে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসাইন জানান, সম্প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যানের একটি আপত্তিকর ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে চেয়ারম্যানের ছেলে রাব্বি সরাইল থানায় পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। 

এই কর্মকর্তা আরও জানান, উপজেলা চেয়ারম্যানের দ্বিতীয় বিয়ের কাবিনও এজহারের সঙ্গে দেওয়া হয়েছে। মামলা দায়েরের পর কুট্টাপাড়া এলাকা থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা মোবাইলে অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে সংরক্ষণ, প্রচার ও সরবরাহ করায় পর্নোগ্রাফি আইনের ৮ ধারায় অপরাধ করেছেন। তাদের মোবাইলে এসব আলামত থাকায় জব্দ করে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়।

মাইনুদ্দীন/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়