ঢাকা     সোমবার   ১৫ আগস্ট ২০২২ ||  শ্রাবণ ৩১ ১৪২৯ ||  ১৬ মহরম ১৪৪৪

হিলিতে চাহিদার চেয়ে বেশি কোরবানির পশু প্রস্তুত 

দিনাজপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৩১, ২ জুলাই ২০২২  
হিলিতে চাহিদার চেয়ে বেশি কোরবানির পশু প্রস্তুত 

দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে চাহিদার তুলোনায় বেশি কোরবানির পশু প্রস্তুত রয়েছে। জেলায় কোরবানির জন্য ১৪ হাজার পশু প্রয়োজন হলেও প্রস্তুত রয়েছে প্রায় ১৬ হাজার। 

উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

বিভিন্ন খামার ঘুরে জানা গেছে, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে দেশীয় পদ্ধতিতে গরু মোটাতাজা করে প্রস্তুত করছেন খামারিরা। বিভিন্ন স্থান থেকে খামারে গরু দেখতে ও কিনতে আসছেন পাইকাররা। তবে খরচ বেশি হওয়ায় গরুর ন্যায্য দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন খামার মালিকরা। গতবারে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত হলেও এবার সরকারের প্রণোদনায় ঘুরে দাঁড়িয়েছেন এই খামারিরা।

হিলি পৌর এলাকার বড়ডাঙ্গাপাড়ার আরিশা ক্যাটল ফার্মের এস কে আসিফ আহমেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, কোরবানির ঈদ উপলক্ষে ৪০টি বড় গরু লালন-পালন করা হয়েছে। সব দেশি জাতের গরু। খাবারে কোনো ধরনের রাসায়নিক দ্রব্য মেশানো হয়নি। সম্পূর্ণ দেশি পদ্ধতিতে খাবার খাইয়ে মোটাতাজাকরণ করা হয়েছে এসব গরু। আর এজন্য বেশি ব্যয় হয়েছে। প্রতিটি গরুর ওজন হয়েছে ৯ থেকে ১১ মণ। ঈদ উপলক্ষে গরু দেখতে ও কিনতে ঢাকাসহ আশেপাশের এলাকা থেকে ব্যবসায়ীরা আসছেন।

হিলি বোয়ালদাড় গ্রামের রমিজ উদ্দিন রাইজিংবিডিকে বলেন, আমি দুটি গরু বড় করেছি। ওজন ৬ থেকে ৭ মণ হবে। রোববার হিলি হাটে তুলবো।

মংলা গ্রামের মতিয়ার রহমান রাইজিংবিডিকে বলেন, প্রতি বছর ছোট দেখে গরু কিনি। সারা বছর তা লালন-পালন করে কোরবানির ঈদে বিক্রি। এ বছর গরুর খাবারের যে দাম, তাতে  দাম ভালো না পেলে লোকসান হবে।

হাকিমপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রতন কুমার ঘোষ রাইজিংবিডিকে জানান, উপজেলায় কোরবানির জন্য ১৪ হাজার পশুর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও ১৬ হাজারের ওপরে পশু রয়েছে। তাই স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হবে এখানকার গরু, মহিষ, ভেড়া ও ছাগল। আশা করা হচ্ছে, খামারিরা ভালো দামে বিক্রি করতে পারবে। কারণ ভারতীয় গরুর আমদানি বন্ধ রয়েছে।

মোসলেম উদ্দিন/ইভা 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়