ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

ঈদকে ঘিরে দর্জিপাড়ায় কর্মব্যস্ততা

দিনাজপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:২২, ৪ জুলাই ২০২২   আপডেট: ১০:২৭, ৪ জুলাই ২০২২
ঈদকে ঘিরে দর্জিপাড়ায় কর্মব্যস্ততা

আর মাত্র কয়েকদিন পরই পবিত্র ঈদ উল আজহা। ঈদতে সামনে রেখে তাই  কাস্টমারদের দেওয়া নতুন কাপড়ের পোশাক তৈরিতে দিন-রাত ব্যস্ত সময় পার করছেন দিনাজপুরের হিলির দর্জি শ্রমিক ও মালিকরা। 

হিলি শহরসহ বিভিন্ন গ্রাম-গঞ্জের হাট ও বাজারের দর্জি দোকান ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি দোকানে সেলাই কাজের অনেক অর্ডার পাচ্ছেন কারিগররা। প্রত্যেক কারিগর দিনে তৈরি করছেন ৫ থেকে ৬টি করে পোশাক।

হিলি বাজারের মাহি টেইলার্সের কারিগর রাজু ও রিয়াজ রাইজিংবিডিকে বলেন, গত দুই বছর করোনার কারণে সবকিছু বন্ধ ছিলো। লকডাউনের জন্য দোকানপাট ঠিকমতো খুলতে পারিনি। ছেলে-মেয়েদের নিয়ে খুব কষ্টে ছিলাম। এখন করোনা নেই। কিছুদিন পর ঈদ। এবার মানুষ অনেক কাপড় তৈরি করতে দিচ্ছে। আশা করছি ঈদ আমাদের ভালো কাটবে।

হিলি সিপির মনিষা টেইলার্সের তিন জন কারিগর রফিকুল, আনিছ ও ইকবাল হোসেন বলেন, হাতে প্রচুর কাজ। প্রতিদিন ৭ থেকে ৮টি কাপড় সেলাই করছি। ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা মজুরি পাচ্ছি। গত বছরের চেয়ে এবার আমরা পরিবার নিয়ে ঈদ ভালোই কাটাবো।

মাহি টেইলার্সের মালিক ও কাটিং মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, অনেক কাজ পাচ্ছি। আমার ৫ জন কারিগর আছে। তাদেরও অনেক কাজ দিচ্ছি। দোকানে অনেক কাপড়ের অর্ডার পেয়েছি। এগুলো সেলাই করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন আছে, তাই নতুন করে অর্ডার আর নিচ্ছি না।

মনিষা টেইলার্সের মালিক ও কাটিং মাস্টার রোমেনা আক্তার মনি বলেন, আমার বাড়িতে কারখানা। এখানে চার জন কারিগর কাজ করে। মেয়েরা আমার কালেকশন করা কাপড় কিনে তা এখানেই তৈরি করেন। ঈদের জন্য প্রচুর কাজের অর্ডার পাচ্ছি। কারিগররাও এবার রাত-দিন কাজ করবেন। আশা করছি আমরা সবাই ঈদের আনন্দ সুন্দরভাবে উপভোগ করতে পারবো।

মোসলেম/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়