ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

রাঙামাটিতে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টায় ২ আসামির কারাদণ্ড

রাঙামাটি প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:২৪, ৬ জুলাই ২০২২  
রাঙামাটিতে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টায় ২ আসামির কারাদণ্ড

রাঙামাটিতে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার মামলায় দুই আসামির সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (৬ জুলাই) দুপুরে রাঙামাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এইএম ইসমাইল হোসেন এ রায় দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আসামি মো. সাখাওয়াত হোসেনকে (২৮) আট বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, এক লাখ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অপর আসামি মো. শাহজাহান উদ্দীন প্রকাশ শাহীন আলমকে (২২) ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। 

দণ্ডপ্রাপ্ত সাখাওয়াত হোসেন চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পূর্বকোদালা ইউনিয়নের সিংহঘোনা গ্রামের মো. আকবর হোসেনের ছেলে। শাহীন আলম একই এলাকার মৃত আবু বক্কর ছিদ্দিকের ছেলে। সাখাওয়াত পেশায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক।

মামলার নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর ভিকটিম কলেজছাত্রী রাজস্থলী থেকে কাপ্তাই বরইছড়ি যেতে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিল। এ সময় অটোরিকশা চালক সাখাওয়াত হোসেন ও তার সহযোগী শাহজাহান উদ্দিন কলেজছাত্রীকে চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাঙ্গালহালিয়া বাজার থেকে অটোরিকশায় তোলে। অটোরিকশা চলন্ত অবস্থায় এক পর্যায়ে অটোরিকশা চালক যাত্রীর আসনে বসে সহযোগীকে অটোরিকশা চালাতে দেন। অটোরিকশা চালক সাখাওয়াত হোসেন পেছনে গিয়ে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় শাহজাহান উদ্দিন চালকের আসনে বসে অটোরিকশা চালায় এবং পুরো ঘটনায় সহায়তা করে।  

একপর্যায়ে ভিকটিম চিৎকার করে চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দেয়। এতে তিনি মাথা, কাঁধে ও হাঁটুতে আঘাত পান। ওইদিনই ভিকটিমের বাবা চন্দ্রঘোনা থানায় মামলা করলে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের রাঙামাটির বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর সাইফুল ইসলাম অভি রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। 
 

বিজয়/বকুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়