ঢাকা     রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৯ ||  ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

রাজবাড়ী‌তে ভেলা বাইচ প্রতি‌যো‌গিতা 

রাজবাড়ী সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১০, ২২ জুলাই ২০২২   আপডেট: ২০:৫২, ২২ জুলাই ২০২২

টানটান উত্তেজনাময় ভেলা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়েছে রাজবাড়ীতে। ভেলা বাইচ দেখতে জমায়েত হয় কয়েক হাজার মানুষ। 

শুক্রবার (২২ জুলাই) রাজবাড়ী সদর উপ‌জেলার আলীপুরে দক্ষীণ পাড়ায় এই ঐতিহ‌্যবাহী ভেলা বাইচের আয়োজন করা হয়। প্রতিযোগীতায় বিভিন্ন গ্রাম থেকে ১৫টি ভেলা অংশ নেয়। প্রতিটি ভেলায় দুজন করে চালক ছিলেন। 

ভেলা বাইচ দেখতে আসা জাফর আহমেদ শেখ (৮০) বলেন, ‘আজ থেকে ২৫/৩০ বছর আগেও আমরা এই ধরনের আয়োজন দেখেছি। কিন্তু এখন আর এরকম আয়োজন দেখা যায় না। অনেকদিন পর এই ভেলা বাইচ দেখে খুবই ভাল লাগছে। আমরা আনন্দিত।’

বাচ্চা মেয়েকে নিয়ে ভেলা বাইচ দেখতে আসা ইউসুফ মন্ডল বলেন, ‘এখন খাল বিল কমে যাওয়ায় নৌকা বাইচ বা ভেলা বাইচ দেখা যায় না। আমার বাড়ি পাশের গ্রামেই। মেয়েকে তাই ভেলা বাইচ দেখাতে নিয়ে আসলাম। এসে খুবই ভাল লাগছে। আশা করছি প্রতিবছর এরকম আয়োজন হবে।’

সোহেল সেক নামের এক তরুণ বলেন, ‘বাপ-দাদার কাছে ভেলা বাইচ, নৌকা বাইচের গল্প শুনেছি। কিন্তু কখনো দেখিনি। আজ প্রথমবার দেখলাম। খুবই ভাল লাগছে।’

স্কুল পড়ুয়া সোনিয়া আক্তার জানায়, বন্ধুদের সাথে ভেলা বাইচ দেখতে এসেছে। এর আগে সে কখনো ভেলা বাইচ বা নৌকা বাইচ দেখেনি। জীবনে প্রথমবার ভেলা বাইচ দেখে খুবই খুশি সে।

ভেলা বাইচ দেখতে আসা মুক্তার হোসেন নামের এক শিক্ষক জানান, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যগুলো আস্তে আস্তে হারিয়ে যাচ্ছে। বর্তমান প্রজন্ম মোবাইল আর ইন্টারনেটে আসক্ত হয়ে পড়ছে। মুক্ত বিনোদনের সুযোগ তাদের কম। আবার তারা সে সুযোগ নিতেও চায় না অনেক সময়। এই ধরনের আয়োজন কিংবা বাঙালীর ঐতিহ্যের সাথে মিশে আছে এমন আয়োজন মাঝে মাঝে হলে বর্তমান প্রজন্ম মুক্ত এবং সুষ্ঠ ধারার বিনোদনের সুযোগ পাবে।

প্রতি‌যো‌গিতায় প্রথম হ‌য়ে‌ছেন ইউ‌পির সা‌বেক মেম্বর আব্দুস সাত্তার, দ্বিতীয় হ‌য়ে‌ছেন নুরুল ইসলাম এবং তৃতীয় হ‌য়ে‌ছেন বাচ্চুর ভেলা।

প্রথম পুরষ্কার হিসাবে ১০০ কেজি মিনিকেট চাল, দ্বিতীয় পুরষ্কার হিসাবে ৭৫ কেজি এবং তৃতীয় পুরষ্কার হিসাবে ৫০ কেজি মিনিকেট চাল দেওয়া হয়।

আলীপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহীন শেখের সভাপতিত্বে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে ছিলেন রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, বিশেষ অতিথি ছিলেন আলীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু বক্কর ছিদ্দিক।

সুকান্ত বিশ্বাস/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়