ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৯ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৫ ১৪২৯ ||  ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

কাজ দেওয়ার কথা বলে অপহরণ, গ্রেপ্তার ৭

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২৪, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৬:০৬, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
কাজ দেওয়ার কথা বলে অপহরণ, গ্রেপ্তার ৭

রাজ মিস্ত্রির কাজ করার জন্য গত রোববার টাঙ্গাইল নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আসেন মো. আ. রহিম (৪০)। তাকে কাজ দেওয়ার কথা বলে একটি বাসায় নিয়ে যায় কয়েকজন ব্যক্তি। সেখানে রহিমকে আটকে রেখে মুঠোফোনে পরিবারের কাছে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। বিষয়টি জানতে পেরে র‌্যাব সদস্যরা অভিযান চালিয়ে সাত অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। একই সঙ্গে উদ্ধার করা হয় রহিমকে।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাব-১২ এর ৩ নম্বর কোম্পানি কমান্ডার মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান এতথ্য জানান।

এর আগে একইদিন সকালে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, কালিহাতী উপজেলার রতনগঞ্জ গ্রামের জামিল হোসেন সাগর (২২), আদি টাঙ্গাইল এলাকার শাকিল আহমেদ হৃদয় (২৭), লাবিব খান (১৮), রাকিবুল ইসলাম (২২), গারাইল এলাকার হৃদয় আহমেদ (২২), সখীপুর সদরের বাধন (১৯), ও রাব্বি খান (১৮)।

অপহৃত রহিম বলেন, ‘আমি কাজের সন্ধানে টাঙ্গাইল শহরে আসি। অপহরণকারীরা আমাকে কাজ দেওয়ার কথা বলে একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে তারা আমাকে মারধর করে এবং পরিবারের কাছে মুক্তিপন দাবি করে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’

র‌্যাব কমান্ডার মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান জানান, শহরে কাজের জন্য এসে অপহরণ হয় রহিম। অপহরণকারীরা তাকে মারধর করে সঙ্গে থাকা তিন হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে আটকে রেখে এক লাখ ২০ হাজার টাকা তার পরিবারের কাছে মুক্তিপন দাবি করে। টাকা না দিলে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। পরে রহিমকে অপহরণকারীরা মোটরসাইকেল শহরের অন্য বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে দুটি বিকাশ নম্বর দিয়ে টাকা আনার জন্য রহিমের বাড়িতে তাগিদ দেয়। বিষয়টি রহিমের ছোট ভাই আ. রাজ্জাক র্যাবকে জানালে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে টাঙ্গাইল শহরের বাজিতপুর সাহাপাড়া থেকে রহিমকে উদ্ধার করা হয়। 

তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে দুটি সুইচ গিয়ার ও চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া ভুক্তভোগী সদর থানায় বাদী হয়ে মামলা করেছেন। গ্রেপ্তারকৃত সাত জনকে সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কাওছার/ মাসুদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়